IQNA

23:54 - September 25, 2018
1
সংবাদ: 2606804
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:সুইজারল্যান্ডের দ্বিতীয় অঞ্চল হিসেবে সেন্ট গ্যালেনে প্রকাশ্যে বোরকা পরা নিষিদ্ধ হয়েছে। এটিকে ‘ইসলামোফোবিক’ বলে অভিহিত করেছে স্থানীয় একটি ইসলামি সংস্থা।

আহাদ তামিমিকে ইরানে আসতে দেয়নি ইসরাইল; শ্রদ্ধা জানাল বিশ্ব কার্যক্রম

বার্তা সংস্থা ইকনা: গত রোববার অনুষ্ঠিত এক গণভোটে ৬৭ শতাংশ ভোটাররা বোরকা নিষিদ্ধের পক্ষে ভোট দেয় বলে জানিয়েছে আল জাজিরা। দুই বছর আগে দেশটির টিসিনো অঞ্চলে বোরকা পরা নিষিদ্ধ হয়।
গত বছর সেন্ট গ্যালেন পার্লামেন্টে পাস হওয়া একটি আইন অনুসারে স্থানীয় গ্রিন পার্টি এবং তরুণ সমাজতন্ত্রপন্থিরা এই গণভোটের দাবি করে।
এই আইনে বলা হয়, যদি কেউ প্রকাশ্যে মুখ ঢেকে নিজেকে অচেনা করে রাখে এবং তা জননিরাপত্তা, সামাজিক ও ধর্মীয় শান্তির জন্য বিপজ্জনক হয়, তবে তাকে জরিমানা করা হবে।
আইনটি পাস হওয়ার পর এক স্কুলছাত্রীর বোরকা পড়ে স্কুলে যাওয়া নিয়ে বেশ আলোড়ন সৃষ্টি হয়। সমালোচকরা বলেন, একজন নারী বোরকা পরে কোথায় গেলে, তা বিপজ্জনক হবে- বিষয়টি নির্দিষ্ট করে আইনে বলা হয়নি। তারা নির্বিচারে বোরকা নিষিদ্ধের বিষয়েও সতর্ক করেন।
দ্য ইসলামিক সেন্ট্রাল কাউন্সিল অব সুইজারল্যান্ড বোরকা নিষিদ্ধের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেছে, এটি ইসলামোফোবিক।
বোরকা নিষিদ্ধের অন্য বিরোধীদের যুক্তি, যেহেতু সেন্ট গ্যালেনের খুব কম নারীই বোরকা বা মুখ ঢাকা কাপড় পরে, সেহেতু এই নিষেধাজ্ঞার কোনও মানে হয় না।
উল্লেখ্য, এই বছর সুইজারল্যান্ডের জুরিখ, সোলোথার্ন ও গ্ল্যারাস প্রকাশ্যে বোরকা নিষিদ্ধের বিষয়টি প্রত্যাখ্যান করেছে।

 iqna

 

প্রকাশিত: 1
পর্যালোচনা করা হচ্ছে: 0
প্রকাশযোগ্য নয়: 0
bpjosftk
0
0
20
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: