IQNA

21:43 - November 27, 2018
সংবাদ: 2607364
বিশিষ্ট চিন্তাবিদ ও কুরআনের বিখ্যাত মুফাসসির মোহসেন কারায়াতি বলেন, ইমাম খোমিনী (রহ.) যে ইসলামী বিপ্লব ঘটিয়েছেন তা ছিল একটি আধ্যাত্মিক বিপ্লব। তিনি ইমাম মাহদীর হুকুমতের প্রেক্ষাপট রচনা করে গেছেন।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: তিনি বলেন, আমরা আগে শাহের শাসনামলের তার কথ মত চলতাম কিন্তু সে ছিল জালিম। আর বর্তমানে বেলায়াতে ফকীহর কথা শুনি। তিনি হচ্ছেন, ন্যায়পরায়ণ। শাহ তার নিজের ইচ্ছামত কথা বলত, কিন্তু ফকীহ ইসলামের কথা বলে নবীর কথা বলেন। শাহ আমেরিকার সন্তুষ্টির জন্য কাজ করত আর ফকীহ আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য কাজ করেন।

আমিরুল মু’মিনিন হযরত আলী(আ.) বলেছেন: «لَا بُدَّ لِلنَّاسِ مِنْ أَمِيرٍ»মানুষের জন্য নেতার প্রয়োজন রয়েছে আর সেই নেতা ভাল হোক বা খারাপ। সুতরাং প্রতিটি সমাজের জন্য উপযুক্ত নেতার প্রয়োজন। ইসলামী সমাজের জন্য ইসলামী ও পরহেজগার নেতার দরকার আর খারাপ সমাজ হরে তারা খারাপ নেতাই বেছে নিবে।

সূরা মায়েদার ৪৪ নম্বর আয়াতে মহান আল্লাহ বলেছেন-

إِنَّا أَنْزَلْنَا التَّوْرَاةَ فِيهَا هُدًى وَنُورٌ يَحْكُمُ بِهَا النَّبِيُّونَ الَّذِينَ أَسْلَمُوا لِلَّذِينَ هَادُوا وَالرَّبَّانِيُّونَ وَالْأَحْبَارُ بِمَا اسْتُحْفِظُوا مِنْ كِتَابِ اللَّهِ وَكَانُوا عَلَيْهِ شُهَدَاءَ فَلَا تَخْشَوُا النَّاسَ وَاخْشَوْنِ وَلَا تَشْتَرُوا بِآَيَاتِي ثَمَنًا قَلِيلًا وَمَنْ لَمْ يَحْكُمْ بِمَا أَنْزَلَ اللَّهُ فَأُولَئِكَ هُمُ الْكَافِرُونَ

আমি তাওরাত অবতীর্ণ করেছি। এতে রয়েছে হেদায়েত ও আলো। (তাওরাত নাযিল হওয়ার পর হযরত ঈসার যুগ পর্যন্ত তাওরাতের বিধানের প্রতি আত্মসমর্পিত) আল্লাহর আজ্ঞাবহ পয়গম্বরগণ ইহুদীদেরকে ফয়সালা দিতেন। ইহুদি দরবেশ, পণ্ডিত ও আলেমরাও ফয়সালা দিতেন এর মাধ্যমে, তারা তাওরাতের সত্যতার বিষয়টি জানতেন বা এ ব্যাপারে সাক্ষ্য ছিলেন এবং তাদেরকে এ খোদায়ী গ্রন্থ রক্ষণাবেক্ষণের নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। অতএব, ( হে ধর্ম বিশেষজ্ঞরা!) তোমরা মানুষকে ভয় করো না ( খোদায়ি বিধানে কোনো সংযোজন-বিয়োজন করো না বা বিকৃতি সাধন করো না), বরং আমাকে (তথা আমার বিরোধিতাকে) ভয় কর এবং আমার আয়াতগুলো স্বল্পমূল্যে বিক্রি করো না, (জেনে রাখ) যেসব লোক আল্লাহ যা অবতীর্ণ করেছেন, সে অনুযায়ী ফায়সালা করে না, তারাই কাফের।

ধর্মীয় নেতাদের উচিত শাসকদের ওপর পূর্ণ নজরদারি রাখা যাতে তারা ধর্ম বিরোধী কোনো পদক্ষেপ নিতে না পারেন এবং এ ব্যাপারে কোনো হুমকির পরোয়া করা বা প্রলোভনে প্রলুব্ধ হওয়া ঠিক হবে না।

আসমানি বিধান থাকা সত্ত্বেও মানব-রচিত বিধানের দ্বারস্থ হওয়া মূল পথ থেকে বিচ্যুতির সমতুল্য।

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
Populyar