IQNA

22:45 - August 17, 2019
সংবাদ: 2609092
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারত থেকে নাইজেরিয়ায় পৌঁছার পর দেশটির ইসলামিক মুভমেন্ট বা আইএমএন'র নেতা শেইখ ইব্রাহিম জাকজাকিকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে নানা প্রতিবন্ধকতার শিকার হয়ে গতকাল নাইজেরিয়ায় ফিরে যান শেইখ জাকজাকি ও তার স্ত্রী।

পার্সটুডের উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: নাইজেরীয় সরকারের ইঙ্গিতে ভারতে শেইখ জাকজাকির চিকিৎসায় বাধা সৃষ্টি করা হয়েছে বলে তার একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে। আইএমএন'র মুখপাত্র ইব্রাহিম মূসা এক বিবৃতিতে বলেছেন, "নাইজেরিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী শেইখ জাকজাকিকে পণবন্দী করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গেছে। জাকজাকিকে কোথায় রাখা হয়েছে তা জনগণকে অবহিত করতে আমরা নিরাপত্তা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।"

১৪ আগস্ট সুচিকিৎসার ‌আশায় ভারতে যান শেইখ জাকজাকি ও তার স্ত্রী। কিন্তু সেখানে গিয়েই তিনি প্রতারণার শিকার হন। শেইখ জাকজাকির ঘনিষ্ঠরা ভারতে যাদের মাধ্যমে চিকিৎসা করানোর জন্য সব ধরণের ব্যবস্থা নিয়েছিলেন শেষ পর্যন্ত তাদের কাছে চিকিৎসা নিতে দেওয়া হয়নি।

শেইখ জাকজাকি নয়া দিল্লি বিমানবন্দরে পৌঁছার পরপরই প্রতারণামূলক পদক্ষেপের মাধ্যমে তাকে ভিন্ন একদল চিকিৎসকের কাছে হস্তান্তর করা হয়। যাদের কাছে জাকজাকি ও তার স্ত্রীকে হস্তান্তর করা হয়েছিল তাদের সঙ্গে জাকজাকির ঘনিষ্টদের ঠিক করা চিকিৎসক টিমের কোনো সম্পর্ক ছিল না।

নাইজেরিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী ও তাদের অনুচররা ভারতে যাদের মাধ্যমে চিকিৎসা করাতে চেয়েছিল তাদের চিকিৎসা প্রক্রিয়ায় সন্তুষ্ট হতে পারেননি জাকজাকি। এছাড়া বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা আরোপ করা হয়েছিল যা মেনে নিতে পারেননি তিনি। আদালতের এক রায়ের ভিত্তিতে চিকিৎসার জন্য শেইখ জাকজাকি ও তার স্ত্রীকে ভারতে পাঠিয়েছিল দেশটির সরকার।  iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: