IQNA

0:41 - October 12, 2019
সংবাদ: 2609417
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র কয়েক সপ্তাহ আগে পাকিস্তানকে অনেকদিনের আঞ্চলিক শত্রু সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে মধ্যস্থতা করার আহ্বান জানায়। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এই লক্ষ্যে তেহরানে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির দুই সরকারি কর্মকর্তা।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক শীর্ষ কর্মকর্তা এবং দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আরেক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এসব কথা জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের শীর্ষস্থানীয় সংবাদ সংস্থা রয়টার্স। তারা শুক্রবার জানান, ইমরান খান এই সপ্তাহের শেষে ইরানের উদ্দেশে রওনা হবেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এই কর্মকর্তা জানান, ইমরান খান সম্ভবত আগামীকাল বা রোববার ইরানের উদ্দেশে দেশত্যাগ করবেন। তিনি নাম না প্রকাশের শর্তে সংবাদ সংস্থাটিকে এসব কথা জানান। কারণ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে এ সংক্রান্ত ঘোষণা দেয়নি।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ ফয়সাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছিলেন, ইরান ও সৌদি আরব সফর করবেন ইমরান খান। সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যকার উত্তেজনা নিরসনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত মাসে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে সাহায্যের আহ্বান জানানোর পর তার তেহরান সফরের বিষয়টি সামনে এলো।

সৌদি আরবে অবস্থিত বিশ্বের সবচেয়ে বড় অপরিশোধিত তেল প্রক্রিয়াকরণ স্থাপনায় গত ১৪ সেপ্টেম্বরের হামলার জন্য তেহরানকে দায়ী করে ওয়াশিংটন। তবে ইরানের পক্ষ থেকে এই হামলায় সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করা হয়।

এদিকে ইরানি গণমাধ্যম জানায়, শুক্রবার সৌদি আরবের উপকূলে লোহিত সাগরে একটি ইরানি মালিকানাধীন তেলের ট্যাংকারে সম্ভবত একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র থেকে হামলা করা হয়েছে। এই হামলার খবরের সত্যতা নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি উল্লেখ করে সংবাদ সংস্থাটি জানায়, এর ফলে ইরান ও সৌদি আরবের মধ্যকার উত্তেজনা আরও বাড়বে। আরটিভি

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: