IQNA

20:16 - May 19, 2021
সংবাদ: 2612816
তেহরান (ইকনা): ভারতের “ফাতিমা রেইহানা” মাত্র ১১ বছরে সম্পূর্ণ কুরআন মুখস্থ করতে সক্ষম হয়েছেন।

দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত কুরআন প্রতিযোগিতায় এক ক্বারির সুমধুর কুরআন তিলাওয়াত শুনে অনুপ্রেরিত হয়ে তিনি কুরআন হেফজ করার সিদ্ধান্ত নেন।

যদিও বিশ্বে যুবতী মেয়েদের কুরআন হেফজ করার বিষয়টি সচারচার হয়ে থাকে; কিন্তু ভারতে ক্ষেত্রে এমনটি নয়। ফাতিমা সেদেশের সর্বকনিষ্ঠ কুরআন হাফেজ। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও বিশেষত কেরালায় কুরআন হেফজ করা একটি সম্মানের বিষয়।

কুরআন মুখস্থ করার ক্ষেত্রে ফাতিমার কাহিনী শুরু হয়েছিল যখন তিনি ভারতের মাদিন একাডেমিতে দ্বিতীয় শ্রেণিতে ছিলেন। একজন ক্বারি কুরআন তিলাওয়াত শুনে তিনি কুরআন হেফজের প্রতি আকৃষ্ট হন। ভারতের এই ক্ষুদে হাফেজ ছোট বেলায় যখন তার মা কুরআন তিলাওয়াত করতেন, তখন তিনি তার তিলাওয়াত শুনতেন এবং এভাবে ফাতিমা সাত বছর বয়তে ৩০ নম্বর পারা হেফজ করতে সক্ষম হন।

কোন শিক্ষক ছাড়ই কুরআন হেফজ করার জন্য মাদিন একাডেমির প্রধান সাইয়িদ ইব্রাহিম খলিল আল বুখারীর নিকট থেকে উপহার পেয়েছিলেন। আর সেকথা তার খুব ভালভাবে স্মরণে আছে। এমন একটি উপহার যা তাকে পুরো কুরআন মুখস্থ করতে উদ্বুদ্ধ করেছে।

তিনি বলেন: আট বছর বয়সে আমি ১০ পারা কুরআন মুখস্থ করেছি। তখন আমি ক্বারিদের মনোরম তিলাওয়াত শুনতাম।

ভারতীয় এই মেয়েটি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে মদীন একাডেমির কুরআন সেন্টারে তার কুরআনীয় পথ অব্যাহত রাখেন। এভাবে তিনি পুরো কুরআন মুখস্থ করতে সফল হন। iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: