IQNA

কুরআন তিলাওয়াত একটি অনন্য শিল্প/১২

বিভিন্ন পন্থায় ওস্তাদ শাহাতের তিলাওয়াতের মোহনীয়তা

22:28 - December 01, 2022
সংবাদ: 3472914
তেহরান (ইকনা): মরহুম ওস্তাদ শাহাত মোহাম্মদ আনোয়ার তার বিশেষ কণ্ঠস্বর এবং আহসান মওকাদাতের সুর ও সঞ্চালনায় দক্ষতার পাশাপাশি একজন মর্যাদাবান ও মহান ব্যক্তিত্বের অধিকারী এবং তার তিলাওয়াত শ্রোতাদের মনে শান্তির ঢেউ সঞ্চার করে।

মরহুম ওস্তাদ শাহাত মুহম্মদ আনোয়ার (১৯৫০-২০০৮) তার মন্ত্রমুগ্ধ তিলাওয়াতের মাধ্যমে বিশ্বে কুরআন তিলাওয়াতের গতিপথ পরিবর্তন করেছেন। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল মাত্র ৫৭ বছর এবং অসুস্থতার কারণে জীবনের শেষ ১০ বছরে তিনি তিলাওয়াত করতে পারেননি। শাহাত মুহাম্মদ আনোয়ার ছিলেন মিশরীয় ক্বারিদের সোনালী প্রজন্মের শেষ ক্বারি, যার ডাকনাম ছিল "আমির আল-নাঘম" (সূরের শাসক)।
শাহাতের সাফল্য তার শক্তিশালী ষড়যন্ত্র এবং সূরের উপর ছিল, এটি তার মর্যাদাপূর্ণ, বিনয়ী এবং নৈতিক ব্যক্তিত্বের উপর নির্ভর করে। শাহাত, ঘোলুশ, মাতওয়ালী আবদ আল-আল প্রভৃতি ক্বারি ছিলেন যাদের ষড়যন্ত্র প্রতিযোগিতায় স্থান অর্জনের জন্য বা বস্তুগত লাভের জন্য নয় বরং সমাজে সর্বশক্তিমান আল্লাহর বাণী প্রচারের জন্য ব্যবহৃত হত। এই প্রবীণদের জীবন পর্যালোচনা এবং পুনরায় পাঠ করা আমাদেরকে কুরআন তিলাওয়াতের আধ্যাত্মিক ঐতিহ্যের প্রতি আরও মনোযোগ দিতে এবং প্রযুক্তিগত দৃষ্টিকোণ থেকে বিপথে যাওয়া প্রতিরোধ করতে পারে।
ওস্তাদ শাহাত আনোয়ারের তিলাওয়াত আমরা গুরুত্ব শব্দের উচ্চারণ এবং সুর এই দুটি দৃষ্টিকোণ থেকে পরীক্ষা করতে পারি। শব্দের উচ্চারণ এবং সুর ছাড়াও, তিলাওয়াত, আধ্যাত্মিকতা এবং যুক্তিযুক্ত তিলাওয়াতের চেতনাও পরীক্ষা করা যেতে পারে। এই আধ্যাত্মিকতা তাদের তিলাওয়াতের শক্তি।
শাহাতের জীবনে বিশেষ শৃঙ্খলা
শাহাত তার তিলাওয়াত অনুকরণীয় এবং প্রবাহিত করতে সক্ষম হয়েছেন। শাহাতের তিলাওয়াত শান্ত এবং সুরের ভিড় এড়ানো ক্ষেত্রে সত্যই ভারী ছিল।
শিল্পের প্রতিটি কাজ তার আত্মার বহিঃপ্রকাশ। আমরা যদি ওস্তাদ শাহাত-এর তিলাওয়াতের উপর মননিবেশ করি, তবে আমরা একটি বিশেষ প্রশান্তি, সংযম এবং আধ্যাত্মিকতা দেখতে পাব যা তাঁর মর্যাদাবান ব্যক্তিত্বের মধ্যে নিহিত রয়েছে।
আমরা যদি ইতিহাসের দিকে তাকাই, তাহলে জানতে পারবো যে, ওস্তাদ শাহাত ১৯৭৯ থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত মিশরে ফজরের সময় সর্বাধিক সংখ্যক তিলাওয়াত করেছেন। তুলায়ায়িনের সময় ক্বারির একটি বিশেষ কণ্ঠ প্রস্তুতি এবং শৃঙ্খলা থাকা উচিত এবং তার জীবনে একজন আধ্যাত্মিক ব্যক্তি হওয়া উচিত। যেমন রাতের খাবার তাড়াতাড়ি খাওয়া, সময়মত ঘুমানো ইত্যাদি বিষয়গুলো একজন পেশাদার ক্বারির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
সূরা কালাম, হাকা ও মারাজ, সূরা নিসা তেলাওয়াত, সূরা ফাতির এবং সূরা গাফিরের তিলাওয়াত ফজরের (সূর্যোদয়ের সময়) এর মতো শিক্ষকের বেশ কয়েকটি দুর্দান্ত তেলাওয়াত করা হয়েছে।
সূরা কালাম, সূরা হাক্কাহ, সূরা মা’আরিজ, সূরা নিসা, সূরা ফাতির এব সূরা গাফির তিনি ফজরের (সূর্যোদয়ের সময়) তিলাওয়াত করতেন। ১৯৭৯ সালে ফজরের সময় সূরা গাফিরের তিলাওয়াত ছিল ওস্তাদ শাহাত আনোয়ারের প্রথম তিলাওয়াত, যা আনুষ্ঠানিকভাবে এবং সরাসরি রেডিও মিশরে প্রচারিত হয়েছিল এবং এই তিলাওয়াতের মাধ্যমে সবাই শাহাতকে চিনতেন। যদি আমরা সেই তিলাওয়াতটি উল্লেখ করি, তবে এর একটি আকর্ষণীয় স্বরও রয়েছে; সে সময় তিনি শেখ সাইদ আল-জানাতির আবৃত্তি দ্বারা প্রভাবিত হন। শাহাত পরে আরো স্বাধীনভাবে তিলাওয়াত করেন।
কিন্তু স্বর বিভাগে, আমরা শাহাত-এর কিছু অনন্য বৈশিষ্ট্য শুনতে পাই, যা তাকে প্রায় মিশরের ইস্টার্ন স্কুলের ক্বারিদের থেকে আলাদা করে, যেমন মাহমুদ ইসমাইল শরীফ, সাইদ আল-জানাতি, মোহাম্মদ আহমেদ শাবিব এবং মাহমুদ হামদি আল-জামেল। সেই বৈশিষ্ট্যটি হ'ল শাহাত শব্দগুলির সাথে সুরকে এমনভাবে সামঞ্জস্য করেন যাতে আপনি একটি সাবলীল তিলাওয়াত শুনতে পান। তিনি কণ্ঠসংগীত এবং যন্ত্রসঙ্গীত উভয় ক্ষেত্রেই পারদর্শী ছিলেন।

 

 
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
captcha