IQNA

23:46 - February 19, 2019
সংবাদ: 2607974
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চীনে সংখ্যালঘু ৩০ লাখ মুসলমানের অধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন মসজিদের ১৩০ জন পেশ ইমাম একটি স্মারকে স্বাক্ষর করেছেন।

বার্তা সংস্থা ইকনা’র রিপোর্ট: চীনের মুসলিম অধ্যুষিত উইঘুর প্রদেশের জিনজিয়াং অঞ্চলে দেশটির সরকার উপর নির্যাতন চালাচ্ছে। মুসলমানদের উপর এধরনের নির্যাতনের জন্য আমেরিকার মুসলিম নেতারা এই বিবৃতিতে চীনের সরকারের সমালোচনা করে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

আমেরিকার মুসলিম নেতাগণ চীনের সরকারের পূর্ব তুর্কিস্তানের কাজাখ, কিরগিজ এবং উজবেকি সংখ্যালঘু মুসলিম সহকারে উইঘুরের সকল বন্দীদের মুক্তি দেয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

এই বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, আমরা আমেরিকার মুসলিম নেতা, ওলামা এবং মসজিদের পেশ ইমামগণ আমাদের মৌলিক দাবীগুলো নীচে তুলে ধরলাম:

চীনের সরকারের নিকটে উইঘুরের মুসলমানদের মুক্ত করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। শিশুদেরকে তাদের পরিবারের নিকটে ফিরিয়ে দেন এবং তাদের ধর্মীয় স্বাধীনতাকে পুনরুদ্ধার করুন। অন্যান্য ধর্মের অনুসারীদের এসকল আহ্বানের সমর্থন করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। উইঘুরের এই ক্যাম্পে মুসলমানদের দিয়ে জোরপূর্বক যে সকল পণ্য দ্রব্য নির্মাণ করছে সেগুলো বর্জন করার জন্য আমেরিকার জনগণের নিকট আহ্বান জানাচ্ছি।

এছাড়াও তারা উইঘুরে মুসলমানদের প্রতি একাত্মতা প্রকাশের জন্য ৬ষ্ঠ এপ্রিলে ওয়াশিংটনে বিক্ষোভে অংশগ্রহণ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

চীনের সরকার ২০১৫ সালে সন্ত্রাস বিরোধী আইন পাশ করেছে। হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ঘোষণা অনুযায়ী,  চীনের সরকার সেদেশের বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানকে জনগণের নাগরিক অধিকার দমনের জন্য অধিক অধিকার প্রদান করেছে।

এছাড়াও চীনের সরকার ২০১৭ সালে সন্ত্রাস প্রতিরোধ আইন পাশ করেছে। এই আইনটি সেদেশর সংখ্যালঘু মুসলমানদের ওপর প্রয়োগ করেছে। এরফলে চীনা সরকারের বিরুদ্ধে বিশ্বে তুমুল প্রতিবাদের ঝড় দেখা দিয়েছে। সমালোচকরা বলেছেন যে, “চীনা সরকার এসব আইন অনুমোদন করে মৌলিক মানবাধিকার এবং সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় স্বাধীনতা লঙ্ঘন করেছে”। iqna

 

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: