IQNA

বার্লিনের ইসলামিক সেন্টার ব্যাখ্যা করেছে;
3:12 - June 05, 2020
সংবাদ: 2610909
তেহরান (ইকনা): জার্মানের বার্লিনে ইমাম আলী (আ.) ইসলামিক সেন্টার সম্প্রতি সূরা বাকারার ৩৪ নম্বর আয়াতে মানুষকে ফেরেশতাদের সিজদা করার ব্যাখ্যা এবং ইবলিসের সিজদা অস্বীকারের ব্যাখ্যা সামাজিক নেটওয়ার্কে প্রকাশ করেছে।

ইমাম আলী (আ.) ইসলামিক সেন্টার সূরা বাকারার ৩৪ নম্বর আয়াতের ব্যাখ্যা দিয়ে বলেছে:

 

«وَ إِذْ قُلْنا لِلْمَلائِکَةِ اسْجُدُوا لِآدَمَ فَسَجَدُوا إِلاّ إِبْلیسَ أَبى وَ اسْتَکْبَرَ وَ کانَ مِنَ الْکافِرینَ»

 

অর্থ: (৩৪) (সে সময়কেও স্মরণ কর) যখন আমরা ফেরেশতাদের বললাম, ‘আদমকে সিজদা কর’, তখন ইবলিস ব্যতীত সকলেই সিজদায় নত হল; সে অমান্য করল এবং অহংকারী হয়ে গেল; আর সে তো অবিশ্বাসীদের অন্তর্ভুক্ত ছিলই।

  • ১- পবিত্র কুরআনের কথায় ইবলিস হচ্ছে জিন জাতি এবং ফেরেশতাদের সাথে আল্লাহর ইবাদত করতো।  «كانَ مِنَ الْجِنِّ»
  • ২- হযরত আদম (আ.)কে সিজদা করার জন্য মহান আল্লাহ নির্দেশ দিয়েছেন। এটি প্রকৃতপক্ষে মহান আল্লাহরই উপাসনা করা। প্রকৃত ইবাদত হচ্ছে কর্মের মাধ্যমে যেমনটি খোদা চেয়েছেন। আমাদের ইচ্ছামতো ইবাদত করলে হবে না। ইবলিস শতাব্দী ধরে আল্লাহর সিজদা করতে রাজি ছিল, কিন্তু হযরত আদমকে (আ.) সিজদা করেনি।
  • ৩- হযরত আদমকে সিজদা কেবল মাত্রে তার জন্যই ছিল না; বরং তাঁর বংশধরদের জন্যও ছিল। যেমনটি অন্যথায় বলা হয়েছে:


«خَلَقْناكُمْ ثُمَّ صَوَّرْناكُمْ ثُمَّ قُلْنا لِلْمَلائِكَةِ اسْجُدُوا لِآدَمَ»


অর্থ: অবশ্যই আমরা তোমাদের সৃষ্টি করেছি, অতঃপর তোমাদের আকৃতি নির্দিষ্ট করেছি, তারপর ফেরেশতাদের বললাম, ‘আদমকে সিজদা কর’। (সূরা আ’রাফ, আয়াত ১১)

এখানে خَلَقْناكُمْ এ বহুবচন সম্বন্ধসূচক সর্বনাম ব্যবহার করা হয়েছে। এব্যাপারে ইমাম সাজ্জাদ (আ.) বলেন: হযরত মুহাম্মাদ (সা.) বলেছেন: আদমের প্রতি সকল ফেরেশতাদের সিজদা মূলত তাঁর বংশধরদের কারণে হয়েছিল। ফেরেশতাদের সিজদা অস্থায়ী ছিল। ফেরেশতাদের সিজদা অস্থায়ী ছিল, তবে মু’মিনদের কাছে তাদের (ফেরেশতাদের) অবতরণ এবং ইস্তেগফার স্থায়ী ছিল।


إِنَّ ٱلَّذِينَ قَالُواْ رَبُّنَا ٱللَّهُ ثُمَّ ٱسۡتَقَٰمُواْ تَتَنَزَّلُ عَلَيۡهِمُ ٱلۡمَلَـٰٓئِكَةُ

অর্থ: নিশ্চয় যারা বলে, ‘আমাদের রব আল্লাহ’, তারপর অবিচলিত থাকে, তাদের কাছে নাযিল হয় ফেরেশতা (সূরা ফুসসিলাত, আয়াত ৩০)

  • ৪- আদমের (আ.)এর প্রতি সিজদা তাঁর দেহের কারণে নয়, বরং তাঁর ঐশ্বরিক আত্মার কারণে।


«فَإِذا سَوَّيْتُهُ وَ نَفَخْتُ فِيهِ مِنْ رُوحِي فَقَعُوا لَهُ ساجِدِينَ»

অর্থ: সুতরাং আমি যখন তাকে সুঠাম করব এবং তাতে আমার থেকে রূহ ফুঁৎকার করব তখন তোমরা তার সম্মুখে সিজদাবনত হবে। (সূরা সাদ, আয়াত ৭২ )

  • ৫- মানুষের মতো ফেরেশতাদেরও আদেশ ও নিষেধ করা হয়। اسْجُدُوا لِآدَمَ (আদমকে সিজদা করো)

 

  • ৬- অভিজ্ঞতার চেয়ে যোগ্যতা অধিক গুরুত্বপূর্ণ। সদ্য সৃষ্টি হওয়া মানুষকে অতি প্রাচীন ফেরেশতাগণ সিজদা করেছে। «اسْجُدُوا لِآدَمَ»

 

  • ৭- কর্মের ক্ষেত্রে অবাধ্য হওয়ার চেয়ে অধিক বিপজ্জনক হল আদেশের অবাধ্যতা করা। . «أَبى‌ وَ اسْتَكْبَرَ»

 

  • ৮- ইবলিশের অহংকার ও দুঃসাহস তার দুর্দশার উৎস হয়ে উঠর। «كانَ مِنَ الْكافِرِينَ»

iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: