IQNA

22:19 - December 17, 2017
সংবাদ: 2604580
মহানবী (সা.) এক হাদীসে উল্লেখ করেছেন যে, কুরআন তিলাওয়াত, সদকা দেয়া এবং মসজিদে যাতায়াতের কারণে কবরের আযাব থেকে মুক্তি লাভ করা সম্ভব।


বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: মানুষ মৃত্যুর পর কবরে শায়িত হয়। কবরে শায়িত হওয়ার পর থেকেই তার ভাল কিংবা মন্দ কর্মের ফলাফল ভোগ করতে হয়। রাসূলুল্লাহ (সা.) কবরে আযাব থেকে মুক্তির উপায় সম্পর্কে একটি হাদীসে বর্ণনা করেছে;

یُؤْتَى الرَّجُلُ فی قَبْرِهِ بِالْعَذابِ، فَإذا اُتِیَ مِنْ قِبَلِ رَأسِهِ دَفَعَتْهُ تِلاوَهُ الْقُرْآنِ، وَ إذا اُتِیَ مِنْ قِبَلِ یَدَیْهِ دَفَعَتْهُ الصَّدَقَهُ، وَ إذا اُتِیَ مِنْ قِبَلِ رِجْلَیْهِ دَفَعَهُ مَشْیُهُ إلىَ الْمَسْجِدِ.

মানুষ মৃত্যুর পর যখন তার শরীরকে কবরে রাখা হয়, তখন উপর থেকে তার প্রতি আযাব নাযিলের সময় কুরআন তিলাওয়াত সে আযাবকে রোধ করে; সামনে থেকে যখন আযাব আসে, তখন সদকা ও ভাল কর্ম তা বাধা দেয়। আর পা’র দিক থেকে যখন আযাব আসে, তখন মসজিদে যাতায়াতের কারণে সে আযাবকে রোধ করে। শাবিস্তান

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: