IQNA

হিজবুল্লাহর মহাসচিব:
22:42 - July 13, 2019
1
সংবাদ: 2608890
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, পুরো ইসরাইল তাদের ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় রয়েছে। কোনো রকমের সংঘাতে জড়ালে ইসরাইলের অস্তিত্ব মুছে যাবে।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে ২০০৬ সালের যুদ্ধের ত্রয়োদশ বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল (শুক্রবার) আল-মানার টেলিভিশনে দেয়া ভাষণে হাসান নাসরুল্লাহ এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, পাশ্চোত্যের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও হিজবুল্লাহ আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে এখন বেশি শক্তিশালী।

সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, “এক সময় আমরা বলতাম হিজবুল্লাহ ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলীয় নগরী হাইফাতে আঘাত হানতে সক্ষম। আজ আমরা বলতে পাারি যে, এইলাতের দক্ষিণেও যদি ইসরাইলের অস্তিত্ব থাকে তাহলে আমরা সেখানে হামলা চালাতে পারি। প্রকৃতপক্ষে পুরো ইসরাইল এখন আমাদের ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় রয়েছে।”
হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, “আমাদের কাছে এখন বিপুল সংখ্যক ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে যা নিখুঁতভাবে আঘাত হানতে সক্ষম; এমন ক্ষেপণাস্ত্র ২০০৬ সালে আমাদের হাতে ছিল না। এছাড়া, আমাদের কাছে বহু সংখ্যক শক্তিশালী ড্রোন রয়েছে”
তিনি দখলদার ইসরাইলের মানচিত্র দেখিয়ে বলেন, “ইসরাইলের দৈর্ঘ ৭০ কিলোমিটার আর প্রস্থ ২০ কিলোমিটার। আমরা এর পুরোটাই ধ্বংস করে দিতে পারি।”
সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ আরও বলেন, খুব শিগগিরই ইসরাইলের সঙ্গে যুদ্ধের আশঙ্কা নেই কারণ ইসরাইল লেবাননের সঙ্গে আরেকটি যুদ্ধের ঝুঁকি নেবে না, এর কারণ হলো হিজবুল্লাহর প্রতিরক্ষা শক্তি। তিনি বলেন, ভবিষ্যতে যে কোনো যুদ্ধে ইনশাআল্লাহ আমাদের বিজয় নিশ্চিত। আল-আকসা মসজিদও মুক্ত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, গোটা ইহুদিবাদী ইসরাইল এখন হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় রয়েছে। পাশ্চাত্যের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও হিজবুল্লাহ অতীতের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী।
তিনি বলেন, আমরা একটা সময় বলতাম ইসরাইলে দক্ষিণ হাইফায় হামলা চালানোর ক্ষমতা আমাদের রয়েছি। আমরা আজ বলতে পারি এইলাতের দক্ষিণেও যদি ইসরাইলের কোনো স্থাপনা থেকে থাকে তাহলে আমরা সেখানেও হামলা করতে সক্ষম, শুধু তাই নয় গোটা ইসরাইল এখন আমাদের ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় চলে এসেছে। হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, ইসরাইল হামলা চালানোর সাহস দেখালে তারা নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে এবং তা তারাও ভালো করেই জানে।
হাসান নাসরুল্লাহ আরও বলেন, আমাদের কাছে ব্যাপক সংখ্যায় ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে এবং এসব ক্ষেপণাস্ত্র নিখুঁতভাবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। ২০০৬ সালে আমাদের এই সক্ষমতা ছিল না। বর্তমানে আমাদের শুধু ক্ষেপণাস্ত্র নয়, শক্তিশালী বহু ড্রোন রয়েছে।
তিনি ভাষণ দেয়ার সময় দখলদার ইসরাইলের একটি মানচিত্র ক্যামেরার সামনে প্রদর্শন করে ইহুদিবাদীদের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোর প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, এখানে ৭০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য এবং ২০ কিলোমিটার প্রস্থের একটি এলাকা রয়েছে যেটাকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেওয়ার সক্ষমতা আমাদের রয়েছে।  iqna

প্রকাশিত: 1
পর্যালোচনা করা হচ্ছে: 0
প্রকাশযোগ্য নয়: 0
ktsjttmu
0
0
20
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: