IQNA

15:48 - September 20, 2019
সংবাদ: 2609261
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গুরুত্বের দিক থেকে সিরি’এ লিগ ও ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স কাপের মতোই ইতালিয়ান সুপার কাপ। যদিও তা প্রীতিম্যাচ মাত্র। তবে এবার এই ইতালিয়ান সুপার কাপ নিয়ে কোন উন্মাদনা নেই ফুটবল প্রেমীদের মধ্যে। কারণটা সুপার কাপের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মরুরদেশ সৌদি আরবে।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: এবারের ইতালিয়ান সুপার কাপটি যে সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত হবে তা আগে থেকেই ঠিক করা ছিলো। সে অনুযায়ী মরুরবুকের কিং আবদুল্লাহ স্টেডিয়ামও প্রস্তুত। মুখোমুখি হবে জুভেন্টাস -এসি মিলান।

কিন্তু ইতালিয়ান মানবাধিকার কর্মী ও রাজনীতিবিদরা বেশ চটে আছেন। তারা মনে করছেন, ম্যাচটি সৌদিতে খেলা মানে জামাল খাসোগির (ওয়াশিংটনপোস্ট, কলামিস্ট) রক্তের উপর খেলা। যাকে কয়েক মাস আগে হত্যা করা হয়েছিলো।

এমন প্রতিবাদ ও সামালোচনার মাধ্যেও ম্যাচের প্রস্তুতি চলছে জেদ্দার কিং আবদুল্লাহ স্পোর্টস সিটিতে। ইতোমধ্যে অংশগ্রহণকারী দুটি দল জুভেন্টাস ও এসি মিলান সৌদি আরবে অবস্থান করছে। ম্যাচটি সৌদির স্থানীয় সম্প্রচার মাধ্যম ও ইতালিয়ান স্যাটেলাইট টিভিতে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

এই ম্যাচে নিয়ে ইতালিয়ান সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতাদের বক্তব্য, ‘এটা দুঃখজনক ও অপ্রত্যাশিত যে তারা সৌদি আরবের মতো দেশে খেলবে। যারা তিন মাস আগেই জামাল খাসোগিকে হত্যা করেছে।’

প্রতিবাদ স্বরূপ ইতালির সাংবাদিক ইউনিয়ন ও মানবাধিকার কর্মীরা রোমের সৌদির দূতাবাসের সামনে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করবে বলে জানিয়েছেন তারা।

গেল বছর জুনে সৌদি ক্রীড়া কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ইতালিয়ান লিগের চুক্তি অনুযায়ী ইতালিয়ান সুপার কাপের আয়োজন করতে যাচ্ছে সৌদি আরব। চুক্তি অনুযায়ী আরো পাঁচটি সুপার কাপ আয়োজন করবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি। এজন্য লিগ কর্তৃপক্ষকে ২৩ মিলিয়ন ইউরো প্রধান করেছে সৌদি আরব। তাছাড়া অংশগ্রহণকারী দলগুলো পাবে সাড়ে তিন মিলিয়ন ইউরো করে।

২০১৬ সালে কাতারে সুপার কাপে মুখোমুখি হয়েছিল জুভেন্টাস ও এসি মিলান। সে ম্যাচে টাইব্রেকারের জুভেন্টাসকে হারিয়েছিল এসি মিলান।   iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: