IQNA

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা:
15:34 - November 15, 2019
সংবাদ: 2609637
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, ইসরাইল মুছে যাওয়ার অর্থ হলো অবৈধ ইহুদিবাদী রাষ্ট্র ব্যবস্থা মুছে যাওয়া। এর ফলে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড তার প্রকৃত মালিক অর্থাৎ মুসলমান, খ্রিষ্টান ও ইহুদিদের কাছে ফিরে আসবে।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: সর্বোচ্চ নেতা আজ (শুক্রবার) তেহরানে চলমান ইসলামি ঐক্য সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী বিদেশি অতিথি ও রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে এ কথা বলেন।

সর্বোচ্চ নেতা বলেন, ইরান কোনো ধরণের কুণ্ঠাবোধ না করেই অতীতের মতো ভবিষ্যতেও ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন ও সহযোগিতা দিয়ে যাবে। অন্য মুসলিম দেশগুলোর উচিৎ ফিলিস্তিনিদের প্রকি অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতা দেওয়া।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আরও বলেন, ইসলামি বিপ্লব সফল হওয়ার পর থেকেই ইরান এই নীতি অনুসরণ করছে এবং ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন ও সহযোগিতা হলো ইরানের মৌলিক ও অকাট্য নীতির অংশ। ইরান মনে করে ফিলিস্তিনিদের সহযোগিতা করা গোটা মুসলিম বিশ্বের দায়িত্ব।

তিনি আরও বলেন, ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের মালিক হচ্ছে সেখানার প্রকৃত অধিবাসীরা, তারা মুসলমান, খ্রিষ্টান বা ইহুদি যাই হোক না কেন। প্রকৃত অধিবাসীদের অধিকার রয়েছে ফিলিস্তিনের সরকার নির্বাচন করার এবং নেতানিয়াহুর মতো বহিরাগত ও মাস্তান-গুণ্ডাদেরকে সেখান থেকে তাড়িয়ে দিয়ে দেশ পরিচালনা করার। একদিন তা বাস্তবায়িত হবে বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, মুসলিম বিশ্বের আলেম ও চিন্তাবিদদের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। তাদেরকে নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে হবে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আলেম সমাজ ও চিন্তাবিদদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা দৃঢ়তার সঙ্গে অধিকার রক্ষায় সোচ্চার হোন, শত্রুদেরকে ভয় পাবেন না। জেনে রাখুন আল্লাহর রহমতে মুসলিম বিশ্ব অদূর ভবিষ্যতে তাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হবে।  iqna

 

 

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: