IQNA

0:05 - November 23, 2019
সংবাদ: 2609681
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিশরের আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক ফতোয়া সেন্টার, নারীদের জন্য হিজাব ফরজের (ওয়াজিব) বিষয়য়ে পবিত্র কুরআন থেকে দলিল উপস্থাপন করেছে।

বার্তা সংস্থা ইকনা’র রিপোর্ট: মিশরের আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক ফতোয়া সেন্টার, নারীদের জন্য হিজাব ফরজের (ওয়াজিব) বিষয়টি পবিত্র কুরআনের সূরা নুর ৩১ নম্বর আয়াত এবং সূরা আহযাবের ৫৯ নম্বর আয়াত ব্যবহার করে দলিল উপস্থাপন করেছে।

আল-আজহারের আন্তর্জাতিক ফতোয়া সেন্টার এক বিবৃতিতে ঘোষণা করেছে: পবিত্র কুরআনের আয়াত এবং আল্লাহর ওহী অনুযায়ী নারীদের জন্য হিজাব ফরজ এবং এই বিষয়টি এজতেহাদের বিষয় নয়। কোন ব্যক্তি পবিত্র কুরআনের কাতয়ী ও নিশ্চিত আহকামের বিরোধিতা করতে পারবে না।

হিজাবের বিষয়ে কিছু ব্যক্তির দাবী এবং তাদের দাবী সম্প্রসারণের ব্যাপারে হুশিয়ার করে এই বিবৃতিতে বলা হয়েছে: কোন সাধারণ এবং অজ্ঞ (বিশেষজ্ঞ নয়) ব্যক্তি এ ব্যাপারে কোন মতামত প্রদান করতে পারবে না। 

আল-আজহার আন্তর্জাতিক ফতোয়া সেন্টার হিজাবের বিষয়ে পবিত্র কুরআনে কিছু নিশ্চিত দলিল উপস্থাপন করেছে। মহান আল্লাহ সূরা নুরের ৩১ নম্বর আয়াতে এরশাদ করেছেন:

وَقُلْ لِلْمُؤْمِنَاتِ يَغْضُضْنَ مِنْ أَبْصَارِهِنَّ وَيَحْفَظْنَ فُرُوجَهُنَّ وَلَا يُبْدِينَ زِينَتَهُنَّ إِلَّا مَا ظَهَرَ مِنْهَا وَلْيَضْرِبْنَ بِخُمُرِهِنَّ عَلَى جُيُوبِهِنَّ

  • বিশ্বাসী নারীদের বল, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে (নিষিদ্ধ বস্তু থেকে) নত রাখে এবং তাদের যৌনাঙ্গকে সংরক্ষণ করে এবং তাদের শোভা প্রকাশ না করে; তবে যা আপনা হতেই প্রকাশিত তা স্বতন্ত্র; এবং তাদের ওড়না দিয়ে যেন গ্রীবা ও বক্ষদেশ ঢেকে রাখে। সূরা নূর/ আয়াত: ৩১

মহান আল্লাহ সূরা আহযাবের ৫৯ নম্বর আয়াতে এরশাদ করেছেন:

يَا أَيُّهَا النَّبِيُّ قُلْ لِأَزْوَاجِكَ وَبَنَاتِكَ وَنِسَاءِ الْمُؤْمِنِينَ يُدْنِينَ عَلَيْهِنَّ مِنْ جَلَابِيبِهِنَّ ذَلِكَ أَدْنَى أَنْ يُعْرَفْنَ فَلَا يُؤْذَيْنَ وَكَانَ اللَّهُ غَفُورًا رَحِيمًا

  • হে নবী! তুমি তোমার পত্নীগণকে, কন্যাগণকে এবং বিশ্বাসীদের নারীগনকে বলে দাও যেন তারা তাদের চাদরগুলোর অবগুণ্ঠন ঝুলিয়ে রাখে, নিশ্চয়ই এটা তাদর (শালীন) পরিচিতির নিকটতর; ফলে তাদের উত্যক্ত করা হবে না। আল্লাহ অতিশয় ক্ষমাশীল, অনন্ত করুণাময়। সূরা আহযাব/ আয়াত ৫৯

উল্লেখিত দু’টি আয়াতে মহান আল্লাহ নামাহারামের সামনে নারীদের হিজাব ফরজ করেছে।

এই বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ইসলাম নারীদের মুখমণ্ডল ও হাতের কব্জি থেকে আঙ্গুল পর্যন্ত খুলে রাখার অনুমতি দিয়েছে এবং এই দু’টি স্থান ব্যতীত সকল স্থান ঢেকের রাখার নির্দেশ দিয়েছে। প্রকৃতপক্ষে এটা তাদের নারীত্বকে রক্ষা করার জন্য এই নির্দেশ দিয়েছে। নারীদেরকে শুধুমাত্র দৈহিক চাহিদা মেটানোর বিরোধিতা করার জন্য ইসলাম এই নির্দেশ দিয়েছে।

আল-আজহারের আন্তর্জাতিক ফতোয়া সেন্টার গুরুত্বারোপ করে ব্যক্ত করেছে: ইসলামী পোশাক নারীদের কল্যাণের জন্য এবং ইসলামী নির্দেশ ছাড়াও এই পোশাক মানুষের ফিতরাত (স্বত্তাগত স্বভাব) পন্থী।

এই ফতোয়া সেন্টার সর্বশেষে যেসকল সাধারণ ব্যক্তি কোন দলীল ব্যতীত শরিয়তগত আহকামের উদ্ধৃতি দিয়ে নারীদেরকে ইসলামী আহকাম থেকে দুরে সরিয়ে নিচ্ছে, তাদেরকে এধরণের ফতোয়া প্রদান না করার জন্য নির্দেশ দিয়েছে এবং ফতোয়ার বিষয়টি আলেম এবং এ বিষয়ে যারা বিশেষজ্ঞ তাদের উপর ন্যস্ত করার আহ্বান জানিয়েছে।

উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি মিশরে হিজাব ফরজের বিষয় নিয়ে বেশ আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। মিডিয়ার কিছু কর্মী এবং শিল্পীগণ সেদেশে হিজাব নিষেধাজ্ঞা চালু করার ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।  iqna

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: