IQNA

16:38 - April 03, 2020
সংবাদ: 2610527
তেহরান (ইকনা)- অধিকৃত কাশ্মীরের জনগণতাত্ত্বিক পরিবর্তনে ভারত সরকারের অব্যাহত প্রচেষ্টাকে ‘অবৈধ’ বলে বিবেচনা করে পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান এক বিবৃতিতে এই কথা বলেছেন।

ভারত সরকার প্রবর্তিত নতুন আধিপত্য আইনের পরিপ্রেক্ষিতেই ইমরান খান এই কথা বলেন। বুধবার ভারত সরকার গেজেট প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই আইন জারি করে, যার অধীনে একজন ভারতীয় নাগরিক, ১৫ বছর ধরে অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীরে বসবাস করলে অঞ্চলটিকে তার আবাসস্থল হিসাবে অভিহিত করতে পারবেন।

নতুন আইনে অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীরের আবাসিক ব্যক্তিকে এমন ব্যক্তি হিসাবে সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে যিনি অঞ্চলটিতে ১৫ বছর ধরে অবস্থান করেছেন বা সাত বছর ধরে পড়াশোনা করেছেন এবং সেখানে অবস্থিত কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে মাধ্যমিক বা উচ্চ-মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, গোটা পৃথিবী যখন করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে, তখন নরেন্দ্র মোদির সরকার জম্মু-কাশ্মীরের জনতত্ত্ব বেআইনি ভাবে পরিবর্তন করে চলেছে৷
তিনি ট্যুইটারে লিখেছেন, ‘হিন্দুত্ব উগ্রবাদী মোদি সরকার অনবরত জম্মু-কাশ্মীরের জনতত্ত্ব পরিবর্তন করার চেষ্টা করেছে বেআইনি ভাবে৷ গোটা সব আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তিকে লঙ্ঘন করছে৷ তারা জেনেভা কনভেশনের চুক্তিও মানছে না ভারত৷’

ইমরান খান লিখছেন, ‘জম্মু-কাশ্মীরে ভারত সরকারের জনতত্ত্ব বদলে ফেলার এই চেষ্টাকে রুখতে আমরা কাশ্মীরিদের পাশে আছি৷ ভারত সরকারের সন্ত্রাসবাদ বিশ্বের কাছে সব সময় তুলে ধরবে পাকিস্তান৷’
সূত্র: ডন।

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: