IQNA

19:19 - June 13, 2020
সংবাদ: 2610954
তেহরান (ইকনা): তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে ইরাকের গ্র্যান্ড আয়াতুল্লাহ সাইয়্যেদ আলী সিস্তানির “জিহাদে কেফায়ী” ফতোয়া জারির বার্ষিকী উপলক্ষে ইসলামিক প্রতিরোধ আন্দোলন “নাজবা” একটি ভিডিও ক্লিপ প্রকাশ করেছে।

‌আজ দায়েশের বিরুদ্ধে ইরাকের গ্র্যান্ড আয়াতুল্লাহ সাইয়্যেদ আলী সিস্তানির “জিহাদে কেফায়ী” ফতোয়া জারির ছয়তম বার্ষিকী।

তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ তথা আইএসের বিরুদ্ধে জিহাদ সম্পর্কিত ফতোয়াটি গ্র্যান্ড আয়াতুল্লাহ সাইয়্যেদ আলী সিস্তানি ২০১৪ সালে এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে নিধন করতে জারি করেন। এই ফতোয়ার পর ইরাকের হাজার হাজার যুবক দায়েশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিট' হাশদ আশ-শাবি বাহিনীতে যোগ দেয়।

২০১৩ সালে ইরাকে দায়েশ (আইএসআইএস) নামে তাকফিরি সন্ত্রাসী দল গঠিত হয়। এই সন্ত্রাসী দল গঠিত হওয়ার পরপরই ফালুজা ও সামাররা শহর দখল করে নেই। অতঃপর চরমপন্থি এই দলটি সুন্নি অধ্যুষিত নেইনাওয়া ও সালাহ আদ-দ্বীন প্রদেশে প্রবেশ করে। এরপর মসুল দখল করে। দায়েশের সদস্যরা এই অঞ্চলগুলোয় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালায় এবং নিরীহ মানুষদের হত্যা করে। এই প্রতিক্রিয়ায় ইরাকের সরকার হাশদ আশ শাবি নামে পরিচিত একটি জনপ্রিয় সেনা দল প্রতিষ্ঠিত করে।

সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীর ভয়াবহ আক্রমণের পরে ইরাকের পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটে। এই সংকটময় পরিস্থিতি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ইরাকের গ্র্যান্ড আয়াতুল্লাহ সাইয়্যেদ আলী সিস্তানির “জিহাদে কেফায়ী” ফতোয়া জারি করেন। উপযুক্ত সময়ে এই ফতোয়ার ফলে ইরাকের জনগণ সংকটময় পরিস্থিতি অতিক্রম করতে সক্ষম হয়েছে। iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: