IQNA

20:02 - June 27, 2020
সংবাদ: 2611037
তেহরান (ইকনা): তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের হাত থেকে ইরাকের মসুল শহর মুক্তি হওয়ার পর প্রথমবারের মতো এই শহরের নুরি জামে মসজিদ থেকে প্রথমবারের মতো আযানের সুমধুর ধ্বনি শোনা গিয়েছে। এই মসজিদ থেকে দায়েশ তাদের কথিত খিলাফত ঘোষণা করেছিলো।

নুরি জামে মসজিদ ইরাকের অন্যতম ঐতিহাসিক একটি মসজিদ যা মসুল শহরের নদীর ডান তীরে অবস্থিত।

দায়েশ ২০১৪ সালে মসুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর এবং এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর নেতা আবু বকর আল-বাগদাদী কর্তৃক কথিত খেলাফত ঘোষণার পর থেকে এই মসজিদটি সংবাদমাধ্যমের আলোচনার মূল বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছিল।

কিন্তু এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠী নিজেদের স্বঘোষিত খিলাফতের তিন বছর পরে মসজিদটি ধ্বংস করে দেয়। ইরাকি সেনাবাহিনী যখন মসুলের নিকটে অগ্রসর হয়, ঠিক তখনই এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠী নুরি মসজিদের মিনার ব্যতীত অন্যান্য অংশ সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করে দেয়।

গতবছর সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ইরাক এই মসজিদটি আগামী ৫ বছরের মধ্যে পুনর্নির্মাণ করার জন্য একটি চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করে। মসজিদটি পুনর্নির্মাণ করতে ৫০ মিলিয়ন ৪ লাখ মার্কিন ডলার ব্যয় হবে। সংরক্ষণ এবং ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক স্মৃতিচিহ্নগুলির পুনরুদ্ধারকরণ সংস্থা আইসিরাম ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর স্টাডি (ICCROM)-এর সহযোগিতায় নুরি মসজিদের পুনর্নির্মাণ কাজ অব্যাহত রয়েছে। iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: