IQNA

20:36 - July 11, 2020
সংবাদ: 2611122
তেহরান (ইকনা): তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান ইউনেস্কো ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্য আয়া সোফিয়া জাদুঘরকে মসজিদ হিসেবে ঘোষণা করেছেন। এরদোগান বলেছেন, আয়া সোফিয়াকে তুরস্কের ধর্মীয় কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে এবং মুসলমানদের নামাজের জন্য খুলে দেয়া হবে।

গতকাল (শুক্রবার) তুরস্কের শীর্ষ আদালত আয়া সোফিয়াকে ১৯৩৫ সালের তৎকালীন সরকারের যাদুঘরে পরিণত করার আদেশ বাতিল করে। যার ফলে বিখ্যাত এই স্থাপনাটি আবারো মসজিদে রূপান্তরিত করার পথে সব রকমের বাধা দূর হয়। এর পরপরই এরদোগান আয়া সোফিয়াকে মসজিদে রূপান্তরের ঘোষণা দেন। আদালতের রায় প্রকাশের পর খুশিতে মেতে ওঠে তুর্কি জনগণ। তারা ইস্তাম্বুলের আয়া সোফিয়ার আশপাশে 'আল্লাহু আকবার' ধ্বনিতে মুখরিত করে তোলে।

ইস্তাম্বুল শহরে অবস্থিত ৬ষ্ঠ শতাব্দীর এই বিখ্যাত স্থাপনা সারা বিশ্বের পর্যটকদের জন্য অত্যন্ত আকর্ষণীয় স্থান। ১৯৩৫ সালে কামাল আতাতুর্কের শাসনামলে মসজিদটিকে জাদুঘরে রূপান্তর করা হয়। এ সময় স্থাপনাটিতে বেশকিছু পরিবর্তন আনা হয়।

এক সংবাদ সম্মেলনে এরদোগান বলেছেন, ২৪ জুলাই আয়া সোফিয়ার মুল ভবনের ভিতরে মুসলমানেরা প্রথম নামাজ আদায় করবে এবং অন্যান্য মসজিদের মতো আয়া সোফিয়া মসজিদও স্থানীয়, অপরিচিত, মুসলমান এবং অমুসলিমদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

ঐতিহাসিক এই ভবনটিকে মসজিদে রূপান্তরিত করার ঘোষণার অল্প সময়ের মধ্যেই এই মসজিদ থেকে আজানের সুমধুর ধ্বনি বেজে ওঠে। এই ঘোষণার পর অনেকই ইতিবাচক এবং নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া প্ররোচিত করেছে। তুরস্কের জনগণ সামাজিক নেটওয়ার্কগুলোয় একে অপরকে স্বাগত এবং অভিনন্দন জানিয়েছেন। iqna

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: