IQNA

0:04 - February 27, 2021
সংবাদ: 2612349
তেহরান (ইকনা): ইঞ্জিন খারাপ হয়ে সমুদ্রে ভেসে বেড়ানো নৌকা থেকে রোহিঙ্গাদের উদ্ধার করল ভারত। তাদের এখন বাংলাদেশে পাঠাতে চায় দিল্লি।
অবশেষে উদ্ধার পেলেন সমুদ্রে ভেসে বেড়ানো রোহিঙ্গারা। ভারতীয় কোস্ট গার্ডের দুইটি জাহাজ গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করেছে। তবে নৌকার আট যাত্রী মারা গেছেন। একজন নিখোঁজ।
 
ভারতের বিদেশ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, ''আমাদের কাছে খবর আসে গত ১১ ফেব্রুয়ারি। বাংলাদেশের কক্সবাজার থেকে রোহিঙ্গা-ভর্তি একটি নৌকো ছাড়ে। পরে তার ইঞ্জিন খারাপ হয়ে যায়। সেই খবর পেয়ে কোস্ট গার্ডের দুইটি জাহাজ পাঠানো হয়। নৌকায় ৬৪ জন নারী ছিলেন, তার মধ্যে আটজনের বয়স কম। ২৬ জন পুরুষ। যাত্রীদের মধ্যে আটজন মারা গেছেন। একজন নিখোঁজ।''
 
অনুরাগ স্পষ্ট করে দিয়েছেন, ভারত ওই রোহিঙ্গাদের দেশে রাখতে চায় না। বাংলাদেশে ফেরত পাঠাতে চায়। তিনি জানিয়েছেন, ''নৌকার ৪৭ জন যাত্রীর কাছে ইউনাইটেড নেশন, হাই কমিশনার ফর রিফিউজিস(ইউএনএইচসিআর)-এর পরিচয়পত্র ছিল। তাতে লেখা, তাঁরা মিয়ানমার থেকে ছিন্নমূল হয়ে বাংলাদেশে এসেছেন। বাংলাদেশের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা চলছে।''
 
১৯৮২ সালে বৌদ্ধ প্রধান মিয়ানমারে নাগরিকত্ব নিয়ে একটি আইন পাশ হয়৷ আর তাতেই নাগরিকত্ব হারায় মুসলিম প্রধান রোহিঙ্গারা৷ জাতিগত সহিংসতার শিকার হয়ে অনেক রোহিঙ্গা বাস্তুচ্যুত হন৷ রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের শিকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয় মানবিক বাংলাদেশ৷ জনসংখ্যার চাপে থাকা ছোট্ট দেশটিতে প্রায় দশ লাখ রোহিঙ্গা বসবাস করছে৷
 
বাংলাদেশ গত সোমবার জানায়, কক্সবাজার থেকে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কোনো নৌকা ছেড়েছে, এমন খবর সরকারের কাছে নেই। প্রশ্ন হলো, বাংলাদেশ কি ওই রোহিঙ্গাদের নেবে? বাংলাদেশ না নিলে তাঁরা কোথায় আশ্রয় পাবেন? ভারত কি তাঁদের আশ্রয় দেবে? এই সব বিষয়ে অনুরাগ কিছু জানাননি। এই রোহিঙ্গারা নৌকা করে কোথায় যাচ্ছিলেন, তাও জানা যায়নি।
 
কয়েকদিন আগেই ইউএনএইচসিআরের তরফে জানানো হয়েছিল, আন্দামান সাগরে রোহিঙ্গা-ভর্তি নৌকা ইঞ্জিন খারাপ হয়ে বিপাকে পড়েছে। নৌকাটি সাগরে ইতস্তত ঘুরছে। যাত্রীদের পানীয় জল ও খাবারও শেষ। তাই দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলিকে তারা আবেদন জানিয়েছিল, তারা যেন ওই রোহিঙ্গাদের উদ্ধার করে। তারপরই ভারত তাঁদের উদ্ধার করেছে।

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: