IQNA

20:39 - October 27, 2021
সংবাদ: 3470882
তেহরান (ইকনা): খ্রিস্টান-ইসলামিক অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য ডিফেন্স অফ জেরুজালেম অ্যান্ড সেন্টস আজ জোর দিয়ে বলেছে যে, ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনারা আল-আকসা মসজিদের নিকটে আল-ইউসুফিয়া কবরস্থানে ইচ্ছাকৃতভাবে আক্রমণ চালিয়ে ধ্বংস করে যাচ্ছে।

দখলদার ইহুদিবাদী শাসকগোষ্ঠীর সৈন্যরা আজ ২৭শে অক্টোবর তৃতীয় দিনের মতো আল-ইউসুফিয়া মাজার ধ্বংস করে চলেছে। এই অত্যাচারী শাসক অজুহাত দেখিয়েছ যে, অতি প্রাচীন এই কবরস্থান জেরুজালেমের দখলদার সরকারের পৌরসভার জমি।
 
আল-ইউসুফিয়া কবরস্থানের উত্তর অংশে এবং জেরুজালেমের পুরানো অংশের প্রাচীরের আশেপাশে ইহুদিবাদী শাসক খননকাজ শুরু করেছে। আর এরফলে অনেক ফিলিস্তিনি শহীদের কবর ধ্বংস হয়ে গিয়েছ। উগ্র শাসকের এই কর্ম জেরুজালেমের জনগণের ক্ষোভকে উস্কে দিয়েছে। 
 
ইহুদিবাদী ইসরাইলি শাসক কর্তৃক কুদসের জনগণের এই কবরস্থান ভেঙ্গে ফেলার উদ্দেশ্য হল পূর্ব কুদসের "মাউন্ট অফ অলিভস" এর পাদদেশে একটি তোরাহ সবুজ স্থান এবং স্টেপড প্লাটফর্ম তৈরি করা।
 
কবরস্থান ধ্বংসের প্রতিবাদ জানাতে আজ কুদসের বাসিন্দারা এই কবরস্থানের প্রবেশদ্বারে দাঁড়িয়ে ছিল। যাতেকরে দখলদার বাহিনী তাদের সরঞ্জাম এবং যানবাহন নিয়ে এই করবস্থানে প্রবেশ করতে না পরে। কিন্তু ইহুদিবাদী সেনারা তাদের উপর আক্রমণ চালায় এবং প্রতিবাদকারীদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে।  
 
জেরুজালেমের অ্যাসোসিয়েশন অফ আরব স্টাডিজের পরিচালক খলিল আল-তাফকাজি বলেছেন, আল-আকসা মসজিদের কাছে মুসলমানদের অন্তর্গত কবরস্থানসমূহকে লক্ষ্যবস্তু করা দখলদার শাসকদের বসতি স্থাপনের পরিকল্পনার অংশ।
 
সমগ্র জেরুজালেম এবং ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের মুফতি মুহাম্মদ হুসেইন আরব ও ইসলামী উম্মাহকে দখলদার শাসকদের আক্রমণ এবং সেখানে ইসলামিক পবিত্রতা অবমাননা করার মুখে দায়িত্বশীল আচরণ করার আহ্বান জানান।
 
মুফতি হুসাইন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন: "অধিকৃত জেরুজালেমের ইসলামিক কবরস্থানসমূহে দখলদার শাসকদের আক্রমণ জেরুজালেমের জনসংখ্যাগত এবং ভৌগলিক প্রেক্ষাপট পরিবর্তন করার প্রচেষ্টার অংশ।"
 
সম্প্রতি, একই আল-ইউসুফিয়া মাজারে এক ফিলিস্তিনি মা তার ছেলে আলা আল-নাবাতিয়ার করব রক্ষা করার একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে, যাতে ইহুদিবাদী সেনারা তার ছেলে কবর ধ্বংস  করতে না পারে।
 
আলা নানাবতা নামে ৫৪ বছর বয়সী এক ফিলিস্তিনি মহিলা জানতে পারেন যে, দখলদার ইসরাইলি বাহিনী বুলডোজার দিয়ে তার ছেলের কবর ভেঙে ফেলতে এসেছে। খবরটি পাওয়ার পর তিনি তার ছেলের কবর রক্ষা করার জন্য করবের পাশে যান।
এ সময় বর্বর ইসরাইলি সেনারা তাকে টেনেহিঁচড়ে সেখান থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু মমতাময়ী মা তার ছেলের কবর আকড়ে ধরে রাখেন। এসময় তিনি বলতে থাকেন আমাকেও এখানে কবর দাও। তবু আমার ছেলের কবর ধ্বংস করো না।"
 
চার বছর আগে সন্তানকে হারান ওই ফিলিস্তিনি মা। এরপর থেকে প্রতিনিয়ত ইসরাইলি সেনাদের হাতে তার ছেলে কবর ধ্বংসের আতঙ্কে ছিলেন তিনি।
 
ইসরাইলের সঙ্গে ১৯৪৮ ও ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে যেসব ফিলিস্তিনি শহিদ হয়েছিলেন, আল-আকসার পাশে আল- ইউসুফিয়া নামে বহু পুরনো মুসলিম কবরস্থানটিতে তাদের দাফন করা হয়েছিল।
 
আন্তর্জাতিক নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে প্রতিনিয়ত এ ধরনের অমানবিক কর্মকাণ্ড করে যাচ্ছে ইহুদিবাদী এ দেশটি। iqna
 
 
 

 

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: