IQNA

জান্নাতের নারীদের নেত্রী হযরত ফাতিমার (সা. আ.) দু'আ

14:10 - January 05, 2022
সংবাদ: 3471235
তেহরান (ইকনা): দু’য়া শব্দের আভিধানিক অর্থ হলো চাওয়া, ডাকা, প্রার্থনা করা। তবে আমরা যারা মুসলিম ও ইসলাম ধর্মানুরাগী তারা বিনয়ের সঙ্গে মহান আল্লাহ রব্বুল আলামিনের দরবারে কল্যাণ ও উপকার লাভের জন্য এবং ক্ষতি ও অপকার থেকে বেঁচে থাকার জন্য যে প্রার্থনা করি তাকেই এক কথায় ‘দু’য়া’ বলি। এ দু’য়াও আল্লাহর কাছে ইবাদত হিসেবে গণ্য। 

দু’য়ার গুরুত্বসম্পর্কে রসুল (সা.) বলেছেন, ‘দু’য়াই হলো আল্লাহর নৈকট্য লাভের সহজ মাধ্যম।’ আল্লাহর কাছে কায়মনোবাক্যে প্রত্যাশা ও সাহায্য কামনার মাধ্যমে মানুষ তার প্রতিপালকের কাছে দু’য়ার মাধ্যমে ইবাদত করে এবং তার উদ্দেশ্য লাভে সফল হয় এবং আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করে। 

আর যারা মানুষের হেদায়েতের জন্য মহান আল্লাহর পক্ষ থেকে নির্বাচিত হয়েছন, তাদের নিকট হতে অনেক দু’য়া বর্ণিত হয়েছে। আজ আমরা জান্নাতের নারীদের নেত্রী হযরত ফাতিমা জাহরা (সা. আ.) হতে বর্ণিত একটি দু'আ সম্পর্কে অবগত হবো:

 

اَللّٰهُمَّ ذَلِّلْ نَفْسِيْ فِيْ نَفْسِيْ وَ عَظِّمْ

 

شَأْنَكَ فِيْ نَفْسِيْ وَ أَلْهِمْنِيْ طَاعَتَكَ

 

وَالْعَمَلَ بِمَا يُرْضِيْكَ وَ التَّجَنُّبَ لِمَا

 

يُسْخِطُكَ يَا أَرْحَمَ الرَّاحِمِيْنَ

 

হে আল্লাহ , আমার নফসের ( সত্ত্বা বা অন্তর ) কাছে আমার নফসকেই অবনত ( বিনম্র ছোট , ক্ষুদ্র ও বশীভূত অর্থাৎ যলীল ) করে দিন ; আর আপনার শা'ন ( মাকাম ও মর্যাদা ) আমার অন্তরে বড় ও মহান ( আযীম্ ) করে দিন ; আমাকে আপনার আনুগত্য করা , যা আপনাকে সন্তুষ্ট করে তা আঞ্জাম দেওয়া এবং যা আপনাকে অসন্তুষ্ট করে তা থেকে বিরত ও দূরে থাকার অনুপ্রেরণা ও উৎসাহ দিন , হে সর্বশ্রেষ্ঠ দয়ালু ( ইয়া আরহামার রাহিমীন ) ।

অনুবাদ: ইসলামী চিন্তাবিদ এবং গবেষক হুজ্জাতুল ইসলাম ওলায় মুসলেমিন মুহাম্মদ মুনীর হুসাইন খান

 

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* :