IQNA

দিল্লির জামিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের চত্বরেও নিষিদ্ধ সফুরা

0:09 - September 18, 2022
সংবাদ: 3472482
তেহরান (ইকনা): ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে আন্দোলন করা সফুরা জারগারের ভর্তি গত মাসেই বাতিল করেছিল দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। এবার বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরেই তার প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছে জামিয়া কর্তৃপক্ষ। দিল্লির দাঙ্গায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। বর্তমানে জামিনে মুক্ত রয়েছেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে বিক্ষোভ ও মিছিল আয়োজনের কারণে তার বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। সফুরা অপ্রাসঙ্গিক ও আপত্তিকর ইস্যুতে আন্দোলন ও বিক্ষোভ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তিপূর্ণ পড়াশোনার পরিবেশ নষ্ট করেছেন বলে অভিযোগ করেছে কর্তৃপক্ষ। তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের উসকানি দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে শান্তি বজায় রাখতেই এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

 

এর আগে এমফিলের জন্য গবেষণাপত্র জমা দিতে অতিরিক্ত সময়ের আবেদন করেছিলেন সফুরা। কিন্তু তার আবেদন গ্রহণে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে’ দেরি করেছে কর্তৃপক্ষ, এমন অভিযোগ জানিয়ে টুইটারে পোস্ট করেছেন তিনি।  

 

ভর্তি বাতিল হওয়ার নোটিশ পোস্ট করে টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘সাধারণত শামুকের গতিতে চলা জামিয়া আমার ভর্তি বাতিল করতে আলোর গতিতে ছুটছে। ভর্তি বাতিল হওয়ায় মন ভাঙলেও মনোবল ভাঙেনি। ’

 

প্রসঙ্গত, জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ার গবেষণা শিক্ষার্থী তথা সিএএ আন্দোলনের কর্মী সফুরাকে ২০২০ সালে গ্রেপ্তার করেছিল দিল্লি পুলিশের বিশেষ সেল। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া ছাড়াও তার বিরুদ্ধে দিল্লির উত্তর-পূর্বাঞ্চলে হিংসার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকার অভিযোগ আনা হয়। গ্রেপ্তারের পর সফুরার বিরুদ্ধে ইউপিএ আইনে মামলা দায়ের করে পুলিশ। তিহার জেলে বন্দিদশা থেকে জামিনের আবেদন করলেও তা তিনবার খারিজ হয়ে যায় দিল্লির আদালতে। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর মানবিকতার খাতিরে ২০২০ সালের জুন মানে সফুরাকে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন।

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
captcha