IQNA

15:03 - August 31, 2017
সংবাদ: 2603722
ইমাম মাহদীর (আ.) হুকুমত সম্পর্কে যে সকল রেওয়ায়ত বর্ণিত হয়েছে তা থেকে বোঝা যায় যে, তাঁর হুকুমতের প্রধান তিনটি কর্মসূচী রয়েছে এবং তা হচেছ: সাংস্কৃতিক কর্মসূচী, সামাজিক কর্মসূচী এবং অর্থনৈতিক কর্মসূচী৷

শাবিস্তানের উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: ইমাম মাহদীর(আ.) আবির্ভাবের যুগে যেহেতু, মানুষের বিকে-বুদ্ধির, শারীরিক এবং নৈতিক উন্নয়ন সম্পূর্ণ হবে সেহেতু তখন আর কারও মধ্যে অন্যের জিনিস মেরে খাওয়ার কোন মানসিকতা থাকবে না।

ইমাম মাহদীর (আ.) রাষ্ট্রের সকল সম্পদ ইমামের হাতে থাকবে এবং তিনি তা দিয়ে একটি সুষ্ট অর্থব্যবস্থা গড়ে তুলবেন৷

ইমাম বাকের (আ.) বলেছেন: تطوی له الارض و نظهر له الکنوز

ভূমি পেঁচিয়ে উঠবে এবং তার মধ্যে লুকাইত সকল সম্পদ প্রকাশিত হবে (কামালুদ্দিন খণ্ড- ১, বাব ৩২, হা: ১৬, পৃ.-৬০৩)৷

এই সাম্যের ফলাফল হচেছ সমাজ থেকে দরিদ্রতা দূরীভূত হবে এবং শ্রেণী বৈষম্য দূর হয়ে যাবে৷

ইমাম বাকের (আ.) বলেছেন: ইমাম মাহদী (আ.) সবার সাথে সমান আচরণ করবেন যার ফলে সমাজে আর কোন যাকাত প্রাপ্ত লোকের সন্ধান পাওয়া যাবে না (বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড- ৫১, পৃ.-৩৯০)৷

ইমাম বাকের (আ.) বলেছেন: فلا يبقی فی الارض خراب الا عمر…

পৃথিবীর কোথাও অনুন্নত কিছুই থাকবে না, সারা বিশ্ব উন্নতিতে ভরে যাবে (কামালুদ্দিন, খণ্ড- ১, বাব ৩২, হা: ১৬, পৃ.-৬০৩)৷
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: