IQNA

18:47 - December 26, 2017
সংবাদ: 2604646
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: খ্রিস্টান-ইসলামিক কমিটির সদস্য ফাদার ম্যানুয়েল মুসাল্লাম বলেছেন, জেরুজালেমে যা ঘটছে, আগামী দিন তা মক্কায়ও ছড়িয়ে পড়তে পারে। আল জাজিরার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ সতর্কবার্তা দেন।


বার্তা সংস্থা ইকনা: আন্তঃধর্মীয় এই নেতা বলেন, পবিত্র জেরুজালেম শহরে যা ঘটছে, তা শেষ পর্যন্ত একটি ধর্মযুদ্ধে পরিণত হবে। কারণ আল-আকসার নিচে ইসরাইল যে গুহা খুড়ছে, তাতে শেষ পর্যন্ত আল-আকসার পতন ঘটবে।

মুসাল্লাম বলেন, জেরুজালেমকে মুসলিম কিংবা খ্রিস্টান বলা ভুল। ফিলিস্তিনি হিসেবে আমরা চাই, জেরুজালেম আরবের থাকুক। কারণ এটা আরবেরই।

মুসাল্লাম আরো বলেন, ইসরাইলের ধর্মীয় আধিপত্য ঠেকাতে আমরা সারা পৃথিবীকে আহ্বান জানাই। আমরা ধর্মযুদ্ধ প্রত্যাখ্যান করি। কিন্তু যুদ্ধ আমাদের ওপর চাপিয়ে দিলে ইহুদিবাদী ও খ্রিস্টান মৌলবাদীদের ঠেকাতে আমরা আমাদের মুসলিম ভাইদের পক্ষে দাঁড়াবো।

ইসরায়েলি আক্রমণ ঠেকাতে ফিলিস্তিনিদের অস্ত্র দিয়ে সহায়তার জন্য মুসলিম দেশগুলোর প্রতিও আহ্বান জানান তিনি।

জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্তকে ফিলিস্তিন, এর জনগণ ও জেরুজালেমের বিরুদ্ধে সরাসরি যুদ্ধ হিসেবে বর্ণনা করেন মুসাল্লাম।

তিনি বলেন, তারা যেন বিভক্ত বিভিন্ন গোষ্ঠিগুলোকে এক মঞ্চে নিয়ে আসেন ও ইসরাইলকে প্রতিরোধ করেন।

ফিলিস্তিনি সাহসী কিশোরী আদ তামিমির জামিন নামঞ্জুর

জেরুজালেম: বিশ্বজুড়ে আলোচিত দখলদার ইসরাইলি দুই সেনার গালে চড় মারা ফিলিস্তিনি সেই সাহসী কিশোরী আদ তামিমির জামিন নামঞ্জুর করা হয়েছে।

সোমবার ইসরাইলের সামরিক আদালত আদ তামিমিকে আরো চার দিন আটক রাখার আদেশ দিয়েছেন। মূলত ঘটনার অতিরিক্ত তদন্তের জন্য তাকে বন্দি রাখার এই আদেশ দেওয়া হয়। খবর আল আরাবিয়া

ষোড়শী আদ তামিমি গত সপ্তাহে তাদের বাড়িতে দুই সেনার গালে চড় মারার অভিযোগে অভিযুক্ত হন। এ অভিযোগে তার মা ও এক আত্মীয়াসহ তাকে গত ২২ ডিসেম্বর আটক করে ইহুদি ইসরাইলী সেনারা।

আদ তামিমিকে আটক ও তাকে শারীরিকভাবে হেনস্থা করায় বিশ্বজুড়ে সমালোচিত হয় ইসরাইলি বাহিনী। ঘটনাটি তোলপাড় সৃষ্টি করে সামাজিক মাধ্যমে।

পশ্চিম তীরের নবী সালেহ গ্রামের কিশোরী আদ তামিমিদের বাড়িতে গত ২১ ডিসেম্বর রাতে অভিযান চালায় ইসরাইলি সেনারা। বাড়ির বিভিন্ন মালামাল লুট করতে গেলে ইসরাইলি সেনাদের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়েন এই কিশোরী ও তার মা।

তাকে শারীরিকভাবে হেনস্থা করতে গেলে এক পর্যায়ে দুই সেনার গায়ে চপেটাঘাত করে এই ষোড়শী। এর ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে আরব বিশ্বের গণমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমগুলোতে।

পরদিন সকালে তাকে আটক করে নিয়ে যায় ইসরাইলি সেনারা। আদ তামিমিকে ছাড়িয়ে আনতে গেলে তার মাকেও আটক করা হয়। আরটিএনএন

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: