IQNA

7:06 - August 07, 2018
সংবাদ: 2606393
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসরাইল ও আমেরিকাকে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ সন্ত্রাসী বলে আখ্যা দিয়েছেন আমেরিকার উইসকনসিনের দার্শনিক জেমস ফেটিজার। মার্কিন সিনেট সম্প্রতি ইসরাইলের জন্য বার্ষিক সামরিক সহযোগিতা বাড়িয়ে ৩৮০ কোটি ডলার করার পর ইরানের প্রেস টিভিকে তিনি একথা বলেছেন।


বার্তা সংস্থা ইকনা: তিনি বলেন, এর মধ্যদিয়ে আমেরিকাই নিজের আইন লঙ্ঘন করছে। পাশাপাশি এও প্রমাণিত হয়েছে যে, এই দুই মিত্র বিশ্বের সবেচয়ে বড় সন্ত্রাসী। তিনি মার্কিন সিনেটের এ পদক্ষেপকে নিষ্ঠুর ও লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করেন।

মার্কিন এ দার্শনিক বলেন, মার্কিন সামরিক সহযোগিতা সেই সব দেশকে দেয়ার কথা যাদের কাছে কেনো রকম গণবিধ্বংসী অস্ত্র নেই। কিন্তু ইসরাইলের হাতে পরমাণু, রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্রের বিশাল মজদু রয়েছে তা সবার জানা এবং গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে প্রমাণিত। এ অবস্থায় মার্কিন সিনেটের উচিত ছিল- ইসরাইলের জন্য সামরিক সহযোগিতা না বাড়িয়ে বরং তা বাতিল করা। কিন্তু সিনেটররা ভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন; এতে তাদের ভাবমর্যাদা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

মার্কিন সামরিক সাহায্য বাড়লে ইসরাইলের প্রতিটি পরিবার বছরে ২৩ হাজার ডলার পাবে। গত বুধবার আমেরিকার সিনেটররা 'ইউনাইটেড স্টেটস-ইসরাইল সিকিউরিটি অ্যাসিস্ট্যান্স অথারাইজেশন অ্যাক্ট অব ২০১৮' নামে বিলটি পাস করেন। সিনেটে বিলটি পাস হওয়ার কারণে প্রতিনিধি পরিষদেও তা পাস হওয়ার পথ পরিষ্কার হয়েছে। চলতি সপ্তাহে প্রতিনিধি পরিষদে বিলটি পাস হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এর আগে এ বিষয়ে ওয়াশিংটন ও তেল আবিবের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়েছিল। আমেরিকার পক্ষ থেকে দেয়া এই সহযোগিতার মধ্যে ইসরাইলের ক্ষেপণাস্ত্র প্রকল্পে ব্যয় হবে ৫০ কোটি ডলার এবং ইসরায়েলের ভেতরে মার্কিন অস্ত্রের মজুদ গড়ে তোলার জন্য ধার্য করা হয়েছে ১০০ কোটি ডলার।

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: