IQNA

প্রেসিডেন্ট রুহানি:
11:40 - September 03, 2019
সংবাদ: 2609190
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, আমেরিকার সঙ্গে তার দেশের দ্বিপক্ষীয় আলোচনার কোনো ধরনের পরিকল্পনা অতীতেও ছিল না বর্তমানেও নেই। তিনি আজ (মঙ্গলবার) সকালে ইরানের পার্লামেন্টে কয়েকজন প্রস্তাবিত মন্ত্রীর আস্থাভোটের আগে দেয়া এক বক্তৃতায় একথা বলেন।

পার্সটুডের উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: সাম্প্রতিক সময়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সাক্ষাৎ হতে পারে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে। বিশেষ করে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন গত সপ্তাহে এক বক্তৃতায় বলেন, আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে রুহানি-ট্রাম্প বৈঠক হতে পারে। প্রেসিডেন্ট রুহানি আজকের বক্তব্যের মাধ্যমে মূলত সে সম্ভাবনা নাকচ করে দিলেন।

তিনি ‘অভ্যন্তরীণ প্রতিরোধ’ এবং ‘সক্রিয় কূটনীতি’কে তার সরকারের মূলনীতি হিসেবে অভিহিত করে বলেন, ইসলামি বিপ্লবের শত্রুদের একথা জানা উচিত, ৩০ বছর আগে তারা যেমন ইরাকের মাধ্যমে আট বছরের যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়ে ইরানকে কাবু করতে পারেনি তেমনি আমেরিকা এখন ইরানের বিরুদ্ধে যে অর্থনৈতিক যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়েছে তাতেও কোনো ফল পাওয়া যাবে না।

মার্কিন ষড়যন্ত্রের মোকাবিলায় ইরান ধৈর্যধারণ ও প্রজ্ঞাপূর্ণ অবস্থান গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জানিয়ে প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন, ইরান আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একা হয়ে পড়েনি বরং আমেরিকাকে কোণঠাসা করে ফেলতে পেরেছে। তিনি আরো বলেন, আজ আমেরিকা ও তার মিত্ররা একা হয়ে পড়েছে অন্যদিকে সারাবিশ্ব বিশেষ করে অনেক বড় বড় শক্তি ইরানের পাশে দাঁড়িয়েছে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, আমেরিকা পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর এক বছর সংযম প্রদর্শন করেছে তার দেশ। এক বছর পর ওই সমঝোতায় নিজের দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন স্থগিত রাখতে শুরু করেছে। তিনি আরো বলেন, ইউরোপীয় দেশগুলো তাদের প্রতিশ্রুতি পালনে ব্যর্থ হয় তাহলে ইরান পরমাণু সমঝোতায় দেয়া আরো কিছু প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন স্থগিত রাখবে। ইউরোপকে তাদের প্রতিশ্রুতি পালন করার জন্য আগামী ছয় সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় বেধে দিয়েছে তেহরান।  iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: