IQNA

21:45 - October 07, 2019
সংবাদ: 2609389
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ঢাকাকে বলা হয় মসজিদের শহর। মূলত মুঘল আমল থেকেই মসজিদের শহরে পরিণত হয় ঢাকা। নতুন নতুন মসজিদের পাশাপাশি প্রাচীন আমলের অনেক মসজিদ এখনো বিদ্যমান ঢাকা শহরে।

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: প্রাচীন অমন ৫টি মসজিদ নিয়ে সাজানো এ আয়োজন। প্রাচীন ও ঐতিহাসিক এই পাঁচটি মসজিদের সংক্ষিপ্ত বিবরণ আপনাদের সম্মুখে তুলে ধলা হল:

রাজধানীর শতাব্দীপ্রাচীন পাঁচ মসজিদ

১. কর্তালাব খান মসজিদ
পুরনো ঢাকার বেগম বাজারে অবস্থিত এ মসজিদটি বেগম বাজার মসজিদ নামেও পরিচিত। ১৭০১ থেকে ১৭০৪ সালের মধ্যে নির্মিত এই মসজিদটি তৎকালীন দেওয়ান মুর্শিদ কুলি খানের নামে করা হয়। মুর্শিদ কুলি খান কর্তালাব খান নামেও পরিচিত ছিলেন।

রাজধানীর শতাব্দীপ্রাচীন পাঁচ মসজিদ

২. মুসা খান মসজিদ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল প্রাঙ্গণে মুসা খাঁর মসজিদ নির্মিত হয় আনুমানিক ১৬৭৯ সালে। ধারণা করা হয় যে, মসজিদটি ঈশা খাঁ’র পুত্র মুসা খান নির্মাণ করেন। এ মসজিদ প্রাক-মুঘল স্থাপত্যের একটি নিদর্শন।

রাজধানীর শতাব্দীপ্রাচীন পাঁচ মসজিদ

৩. তারা মসজিদ
পুরানো ঢাকার আরমানিটোলায় আবুল খয়রাত সড়কে অবস্থিত। আঠারো শতকের শুরুর দিকে মির্জা গোলাম পীর নামে এক ধনাঢ্য ব্যক্তি এ মসজিদ নির্মাণ করেন। ‌পরে ১৯২৬ সালে ঢাকার ব্যবসায়ী আলী জান ব্যাপারী মসজিদটির সংস্কার করেন।

রাজধানীর শতাব্দীপ্রাচীন পাঁচ মসজিদ

৪. চকবাজার শাহী মসজিদ
পুরানো ঢাকার চকবাজারে অবস্থিত মুঘল আমলের মসজিদ। মুঘল সুবেদার শায়েস্তা খান এটিকে ১৬৭৬ খ্রিস্টাব্দে নির্মাণ করেন। তিনটি গম্বুজ আর বিশাল মিনার এ মসজিদটির মূল আকর্ষণ।

রাজধানীর শতাব্দীপ্রাচীন পাঁচ মসজিদ

৫. বিনত বিবির মসজিদ
পুরনো ঢাকার নারিন্দা এলাকায় অবস্থিত মধ্যযুগীয় মসজিদ। ঢাকার সবচেয়ে পুরাতন মসজিদগুলোর মধ্যে অন্যতম এটি। ৮৬১ হিজরি বা ১৪৫৭ খ্রিস্টাব্দে সুলতান নাসিরুদ্দিন মাহমুদ শাহের শাসনামলে মারহামাতের কন্যা মুসাম্মাত বখত বিনত বিবি এই মসজিদটি নির্মাণ করেন।  fateh24

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: