IQNA

21:01 - February 17, 2020
সংবাদ: 2610251
তেহরান (ইরান)- ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার পর প্রথমবারের মতো সুদানের আকাশে ঢুকেছে দেশটির যাত্রীবাহী বিমান। রোববার (১৭ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে এ তথ্য জানিয়েছে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

নেতানিয়াহু আরও বলেছে, চলতি মাসে সুদানের অন্তবর্তী সামরিক সরকারের প্রেসিডেন্ট আব্দুল ফাত্তাহ আল বুরহানের সঙ্গে তার বৈঠকের ফলেই দেশটির আকাশ দিয়ে ইসরাইলি বিমান ওড়ানো সম্ভব হয়েছে।

দখলদার ইসরাইল খুব দ্রুত সুদানের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করছে বলে তিনি জানান। সম্প্রতি উগান্ডায় ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে বৈঠক করেন সুদানের অন্তবর্তী সামরিক সরকারের প্রেসিডেন্ট আব্দুল ফাত্তাহ আল-বুরহান।

ইসরাইলের সঙ্গে আপোষের বিরুদ্ধে সুদানে প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে। ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের প্রতিবাদে সুদানজুড়ে কয়েক দিন ব্যাপক প্রতিবাদ হয়েছে। হাজার হাজার সুদানি বিক্ষোভকারী রাজধানী খার্তুমের রাজপথে ইসরাইল-বিরোধী স্লোগান দেন। বিক্ষোভকারীরা ‘আত্মসমর্পন করব না’, ‘দেশ বিক্রি করব না’, ‘ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক মেনে নেব না’ ইত্যাদি বলে স্লোগান দেন।

উগান্ডায় অত্যন্ত রাখঢাক করে সুদানের সামরিক শাসক ও দখলদার ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হলেও তা শেষ পর্যন্ত গোপন থাকে নি। এ সাক্ষাতের খবর দেশে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে সুদানের হাজার হাজার মানুষ প্রতিবাদ জানাতে রাজপথে নেমে আসেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে একদল আইনজীবী প্রেসিডেন্ট বুরহানের বিরুদ্ধে সুদানের আদালতে মামলা দায়ের করেছেন।

সুদানের পিপলস কংগ্রসে পার্টি বলেছে, এই সাক্ষাতের ফলে ফিলিস্তিনি জাতির ন্যায়সঙ্গত অধিকারের প্রতি সর্বাত্মক সমর্থনকারী দেশ হিসেবে সুদানের ভাবমর্যাদা ক্ষুন্ন হয়েছে। এ কারণে আল-বুরহানকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিতে দলটি অন্তর্বর্তী সামরিক সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

ইসরাইল আফ্রিকার মুসলিম দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের জন্য ব্যাপক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তেল আবিব সম্প্রতি ঘোষণা করেছে, আফ্রিকা মহাদেশে ইসরাইলি পণ্য রপ্তানি বৃদ্ধি করতে ৭০ কোটি ডলার বাজেট নির্ধারণ করা হয়েছে। তেলসহ অন্যান্য খনিজ দ্রব্য বিশেষ করে হীরকের খনি থাকার কারণে আফ্রিকার দেশগুলোর প্রতি ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিশেষ আগ্রহ রয়েছে। iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: