IQNA

20:26 - February 21, 2020
সংবাদ: 2610277
তেহরান (ইকনা)-ভারতীয় অভিনেতা ও পরিচালক সঞ্জয় খান সেদেশের ইতিহাসে মুসলমানদের ভূমিকা এবং তাদের পরিষেবাদি সম্পর্কে একটি বই লিখেছেন।

ভারতীয় অভিনেতা ও পরিচালক সঞ্জয় খান তার দ্বিতীয় বই “আসসালামু আলাইকুম ওয়াতান” »(Assalamualaikum Watan) প্রকাশ করতে চলেছেন। এই বইটিতে ভারতের ইতিহাস গঠনে মুসলমানদের ভূমিকা পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে।

সঞ্জয় খান, ভারতের অন্যতম মুসলিম রাজা টিপু সুলতানের জীবন নিয়ে নির্মিত “দ্য সোর্ড অব টিপু সুলতান” (The Sword of Tipu Sultan) সিরিয়ালের মূল অভিনেতা। এই বাইটিতে মোট ১০টি অধ্যায় রয়েছে। বইটির এক স্থানে তিনি গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, প্রথমত তিনি একজন ভারতীয় এবং তারপর তিনি হিন্দু ধর্মে বিশ্বাসী। সঞ্জয় খান বলেন: “সংখ্যালঘু” শব্দটি মুছে ফেলা উচিত, কারণ এটি অপমানজনক অর্থের বহিঃপ্রকাশ।

এই বইতে তিনি ভারত সরকারকে সকল ভারতীয়দের সাথে একই ধরণের আচরণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন। এছাড়াও যদি প্রয়োজন হয় তাহলে বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের নামে একটি ভারতীয় উপসর্গ যুক্ত করার কথাও বলেছেন তিনি। উদাহরণস্বরূপ, মুসলিম-ভারতীয়, হিন্দু-ভারতীয় এবং খ্রিস্টান-ভারতীয়। এর মাধ্যমে সকল নাগরিককে সর্বোপরি ভারতীয় হওয়ার অনুভূতি দেয়।

সঞ্জয় খান বলেন: এই গ্রন্থটির উদ্দেশ্য কেবল এই বিশ্বাসের সৃষ্টি করা নয় যে ভারতীয় মুসলমানরা তাদের অভিবাসী মানসিকতা নিষ্পত্তি করবে, বরং ভারতীয় মুসলমানদের সেবা এবং প্রভাবের শীর্ষে ফিরে আসার জন্য একটি অত্যন্ত স্পষ্ট এবং যুক্তিযুক্ত সমাধান প্রদান করা।

প্রসিদ্ধ ও জনপ্রিয় এই অভিনেতা আরও বলেন: অতীতে ভারতীয় মুসলমানরা দেশের সমৃদ্ধ ইতিহাসের উপর গভীর প্রভাব ফেলেছে এবং “আসসালামু আলাইকুম ওয়াতান” বইটি ভারতীয় মুসলমানদের এই চেতনাকে পুনরুদ্ধারের এক নম্র প্রচেষ্টা মাত্র। iqna

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: