IQNA

15:29 - March 20, 2020
সংবাদ: 2610443
তেহরান (ইকনা)- ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ফার্সি নববর্ষ উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে ‘ঐক্য, সংহতি ও নৈতিকতা’কে ইরানি জনগণের উন্নতির চাবিকাঠি হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেছেন, ঐক্য বজায় রাখার মাধ্যমেই কেবল আমরা আমাদের জন্য একটি উন্নত ভবিষ্যত গড়ে তুলতে সক্ষম হবো।

প্রেসিডেন্ট রুহানি আশা প্রকাশ করে বলেন, ফার্সি ১৩৯৯ সালে অনেকগুলো উন্নয়ন পরিকল্পনা উদ্বোধন করা হবে, জনগণের সহযোগিতায় অর্থনৈতিক খাতে সমৃদ্ধি ফিরে আসবে এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে গোটা বিশ্বের সঙ্গে ইরানের অর্থনৈতিক লেনদেনে অভাবনীয় সাফল্য আসবে। পার্সটুডে

ড. হাসান রুহানি বিগত ফার্সি বছর ১৩৯৮ সালে ইরানি জনগণকে বেশ কিছু কষ্ট ও বিপদ সহ্য করতে হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, বিগত বছরে তেল খাতে ইরানকে কঠিনতম নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হতে হয়েছে যার প্রভাব পড়েছে সার্বিক অর্থনীতিতে। আমেরিকা মনে করেছিল, এই চাপের মুখে ইরানি জাতি ওয়াশিংটনের কাছে নতি স্বীকার করবে। কিন্তু ইরানি জনগণ প্রতিরোধ গড়ে তুলে আমেরিকাকে দেখিয়ে দিয়েছে তারা চাপের মুখে মাথা নত করে না।

প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন, তেল খাতে নিষেধাজ্ঞার কারণে বিগত কয়েক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো তেল রপ্তানির অর্থ ছাড়াই অন্যান্য খাত থেকে ইরানের প্রয়োজন মেটানো সম্ভব হয়েছে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, বিগত বছরের প্রথম নয় মাসে ইরানের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধনাত্মক ছিল এবং মূদ্রস্ফীতি যথাসম্ভব নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হয়েছে। নতুন করে উৎপাদনে যাওয়া শিল্প-কারখানার সংখ্যা ছিল আশাতীত এবং সরকার বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে দেশের জনগণে সব প্রয়োজন মেটাতে সক্ষম হয়েছে।

তিনি বলেন, আজ ফার্সি ১৩৯৯ সালের প্রথম দিন আমি জনগণকে এই সুখবর শোনাতে চাই যে, দেশ সব জরুরি পণ্যের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে এবং আগামী এক বছর বিগত বছরের চেয়ে অনেক ভালো কাটবে।iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: