IQNA

22:35 - September 15, 2020
সংবাদ: 2611474
তেহরান (ইকনা): আশপাশের কিছু আবর দেশ বিশ্বাসঘাতকতা করছে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে। ফিলিস্তিন জনগণের দাবি তাদের স্বাধীনতা আন্দোলনকে ক্ষতিগ্রস্থ করতেই তারা ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থান করছে।

এদিকে আরব দেশগুলো ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পথে হাঁটায় এবার ফিলিস্তিনের রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের মধ্যে ঐক্য গড়ে তুলতে কাজ শুরু করেছে। গাজা উপত্যকা ও পশ্চিম তীরের রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে যে বিরোধ চলে আসছে এবার তা অবসানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) হোয়াইট হাউজে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপস্থিতিতে ইসরাইলের সঙ্গে শান্তিচুক্তিতে স্বাক্ষর করবে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। আরব দেশগুলো দীর্ঘদিন ধরে ফিলিস্তিনে ইসরাইলের আগ্রাসন বন্ধ ও দ্বিরাষ্ট্র সমাধানের যে দাবি জানিয়ে আসছিল এই চুক্তি তার ওপর বড় আঘাত বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।

শনিবার ফিলিস্তিনের রাজনৈতিক দল হামাস ও ফাতাহ মতামতের সব দূরত্বের অবসান ঘটিয়ে ‘সম্মিলিত নেতৃত্বে’ কাজ করতে সম্মত হয়েছে। ইসরাইলের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ‘ব্যাপক জনপ্রিয় প্রতিরোধ’ গড়ে তুলতেই তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

এর আগে গত ৩ সেপ্টেম্বর জোট গঠনের বিষয়ে দখলকৃত পশ্চিম তীর ও লেবাননের বৈরুতে ফাতাহ’র প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস, হামাসের ইসমাইল হানিয়া, ইসলামিক জিহাদের প্রধান জিয়াদ আল-নাখালা এবং ফিলিস্তিনের অন্যান্য রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠক হয়। এই জোট গঠনের বিষয়ে বহু আগেই আহ্বান জানিয়ে আসছিল হামাস। তবে হামাসকে আগে প্রাক্তন ঐক্যচুক্তিকে শ্রদ্ধা প্রদর্শন করতে হবে দাবি করে সেই আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছিলেন মাহমুদ আব্বাস। তবে ইসরাইলের সঙ্গে আমিরাতের শান্তিচুক্তির পর আব্বাস তার আগের অবস্থান থেকে ফিরে আসার ঘোষণা দেন।
সূত্র: dailyinqilab

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: