IQNA

দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ লেখকের উপর হামলার নতুন খবর;

সালমান রুশদির অস্থিতিশীল পরিস্থিতি/ আততায়ী একাই অভিনয় চালিয়েছে

12:36 - August 13, 2022
সংবাদ: 3472283
তেহরান (ইকনা):  ‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ (শয়তানের পদাবলী) বইয়ের ধর্মত্যাগী লেখক সালমান রুশদি'র উপর  গতরাতে এক ব্যক্তি হামলা চালিয়েছে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে দ্রুত হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। বর্তমানের সালমান রুশদি লাইফ সাপোর্টে (ভেন্টিলেটর) এবং অস্থিতিশীল পরিস্থিতির মধ্যে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 

শুক্রবার রাতে সালমান রুশদির আইনজীবী ঘোষণা করেন: কয়েক ঘণ্টা অস্ত্রোপচারের পর সালমান রুশদি ভেন্টিলেটর দিয়ে শ্বাস নিচ্ছে এবং কথা বলতে পারছে না।
 
তিনি আরো বলেন: আমাদের কাছে ভালো খবর নেই। সালমান রুশদির একটি চোখ হারানোর সম্ভাবনা রয়েছে, তার হাতের স্নায়ু বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে এবং ছুরির আঘাতে তার লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
 
নিউইয়র্ক পুলিশ শুক্রবার (স্থানীয় সময়) বিকালে যখন সালমান রুশদির অস্ত্রোপচার চলছিল ঘোষণা করেছে, তাকে ঘাড়ে এবং পেটে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে।
আততায়ী একাই অভিনয় চালিয়েছে
নিউইয়র্ক পুলিশ এক প্রতিবেদনে বলেছে, নবী করিম (সা.)কে নিয়ে অবমাননাকর বই লেখক সালমান রুশদির উপর যিনি হামলা চালিয়েছেন, তিনি একাই এই হামলা চালিয়েছেন। 
পুলিশের মতে, তিনি লেবানিজ বংশোদ্ভূত এবং আমেরিকার নাগরিকত্ব রয়েছে, দক্ষিণ লেবাননে তার পূর্বপুরুষদের বাসভবন এবং বর্তমানে তিনি নিউ জার্সির বাসিন্দা। পেশায় তিনি একজন সাংবাদিক। 
নিউইয়র্ক পুলিশও ঘোষণা করেছে যে, তাদের কাছে এই হামলার উদ্দেশ্য সম্পর্কে কোনো ধারণা নেই, তবে তারা এই হামলার বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য এফবিআই (আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল পুলিশ) এর সাথে যোগাযোগ করছে। 
মেজর ইউজিন জে স্ট্যানিসজেউস্কি সাংবাদিকদের বলেছেন: "আমাদের কাছে এই মুহূর্তে হামলার উদ্দেশ্য সম্পর্কে কোন তথ্য নেই।

আরও পড়ুন:
 
তিনি অব্যাহত রেখেছিলেন যে পুলিশ বিশ্বাস করে যে মাতার একাই এই হামলা চালিয়েছেন।
এই পুলিশ কর্মকর্তা যোগ করেছেন যে সালমান রুশদির উপর হামলাটি ঘটনাস্থলে নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতি সত্ত্বেও হয়েছে, তবে আমাদের বাহিনী সময়মতো ব্যবস্থা নিতে সক্ষম হয়েছিল।
শুক্রবার (স্থানীয় সময়) সকাল ১১টায় নিউইয়র্কের চৌতাকুয়া সেন্টার নামে একটি অলাভজনক শিক্ষাকেন্দ্রে বক্তব্য রাখর সময় সালমান রুশদির ওপর হামলা চালানো হয়।
১৯৮৮ সালে রুশদি মহানবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.), হযরত ইব্রাহিম (আ.) ও পবিত্র কুরআনের অবমাননার উপন্যাস ‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ (শয়তানের পদাবলী) লেখে। ইহুদিবাদী ও সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলোর আর্থিক সহায়তাপুষ্ট বইটি প্রকাশিত হওয়ার পর পরই ভারত ও পাকিস্তানের মুসলমানরা এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান। প্রতিবাদীদের ওপর পুলিশি হামলায় কয়েকজন মুসলমান শাহাদত বরণ করেন। পরে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে নিন্দা ও বিক্ষোভ। এর পর থেকে সালমান রুশদি কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে গোপনে জীবন যাপন করছিল।
বলা হয় যে, ‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ প্রকাশের পর এবং এর ধর্মবিরোধী বিষয়বস্তু নিয়ে মুসলিমদের আপত্তি তোলার পর প্রথম মাসে সালমান রুশদি পনের বারের বেশি তার বাসস্থান পরিবর্তন করে।
ব্রিটিশ সরকার স্যাটানিক ভার্সেস বইটি প্রকাশের জন্য ক্ষেত্র প্রস্তুত করেছিল, অনেক অর্থ ব্যয় করে তার জীবন রক্ষার দায়িত্ব নিয়েছিল। 4077630

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
captcha