IQNA

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে প্রেসিডেন্ট রায়িসি:

ন্যায্য আদালতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের অপরাধের তদন্ত অনুসরণ করবো

11:19 - September 22, 2022
সংবাদ: 3472513
তেহরান (ইকনা): হুজ্জাতুল ইসলাম রায়িসি আমেরিকান-সৃষ্ট সন্ত্রাসবাদ দমনসহ জবরদস্তিমূলক ও হস্তক্ষেপমূলক নীতির বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের বিশিষ্ট এবং অগ্রণী ভূমিকার কথা উল্লেখ করে বলেছেন: শত্রুরা পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের মানচিত্র পরিবর্তন করতে চেয়েছিল। কিন্তু শহীদ কাসেম সোলাইমানির নেতৃত্বের কারণে শত্রুদের এই পরিকল্পনা সফল হয়নি। কাসেম সোলাইমানির এই প্রতিরোধ পরিকল্পনার কারণে তাদে শহীদ হতে হয়েছে। আমরা ন্যায্য আদালতের মাধ্যমে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের অপরাধের সুষ্ঠু বিচার করব।
ন্যায্য আদালতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের অপরাধের তদন্ত অনুসরণ করবোইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলেমিন সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি  বুধবার সকালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে তার ভাষণে বর্তমান ও অবনতিশীল বিশ্বব্যবস্থার ক্ষতি ও বিপদের কথা উল্লেখ করে তিনি বিশ্বে একটি ন্যায়বিচার ও সামরিক বাহিনী গঠনের জন্য ইরানি জাতির ক্রমাগত প্রচেষ্টার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এছাড়াও তিনি ইরান সহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে সন্ত্রাসবাদ এবং মানবাধিকারের মতো ইস্যুতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অবিচার এবং দ্বৈত মানদণ্ডের অসংখ্য উদাহরণের কথা উল্লেখ করে বলেন:  আমরা ন্যায্য আদালতের মাধ্যমে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের অপরাধের সুষ্ঠু বিচার করব।
 
প্রেসিডেন্ট রায়িসি একটি উন্নত ও স্বাধীন ইরানকে থামাতে নিষেধাজ্ঞার অক্ষমতার উপর জোর দিয়েছেন এবং ইরানের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগে মার্কিন সরকারের লজ্জাজনক ব্যর্থতার সরকারী স্বীকৃতি, পারমাণবিক চুক্তির বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করার বিষয়ে ইঙ্গিত করেছেন এবং তার ব্যাখ্যা প্রদান করেছেন। এছাড়াও তিনি তার বক্তব্য অর্থনৈতিক স্বার্থের ব্যবহারের জন্য স্থিতিশীল গ্যারান্টি অর্জনে ইসলামী প্রজাতন্ত্রের সুস্পষ্ট যুক্তির প্রসঙ্গে ইঙ্গিত করেছেন। তার বক্তৃতার শেষ অংশে, বর্তমান বিশ্বে জ্বালানি চ্যালেঞ্জের কথা স্মরণ করিয়ে দেন এবং ন্যায্য জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের পরিকল্পনা ঘোষণা করেন।
 
তিনি বুবধার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের ৭৭তম সাধারণ অধিবেশনে আরও বলেছেন, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হলো ঐশী প্রতিশ্রুতি। ন্যায় বিচারের প্রতি সব মানুষেরই আগ্রহ আছে।
 
রায়িসি বলেন, ইরান গোটা বিশ্বেই ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার পক্ষে, কারণ ন্যায় বিচার ঐক্য সৃষ্টি করে, কিন্তু জুলুম যুদ্ধের জন্ম দেয়।
 
ইরানের প্রেসিডেন্ট তাঁর ভাষণে আরও বলেন, ইরানের ইসলামি বিপ্লব বিশ্ববাসীর মনে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার আশা জাগিয়ে তুলেছে। ইরানের ইসলামি বিপ্লব হলো সত্যের দিকে মানুষের অগ্রযাত্রা। 
 
শত্রুদের নানা ষড়যন্ত্র সত্ত্বেও ইরানের ইসলামি বিপ্লব তার লক্ষ্য-আদর্শ ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে বলে জানান সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি। 4087188

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
captcha