IQNA

মিশরের প্রখ্যাত আলেম ইউসুফ আল কারজাভির ইন্তেকাল

20:38 - September 26, 2022
সংবাদ: 3472535
তেহরান (ইকনা): বিশ্ববিখ্যাত আলেম ও ইসলামী ব্যক্তিত্ব আল্লামা ইউসুফ আল-কারজাভি ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। 

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর। তিনি দীর্ঘদিন কাতারভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অব মুসলিম স্কলার্সের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
 
কাতারের রাজধানী দোহায় তিনি ইন্তেকাল করেন। আল্লামা কারজাভির ছেলে আব্দুর রহমান ইউসুফ টুইটবার্তায় বাবার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
 
গতকাল সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টায় আল্লামা কারজাভির ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজ এবং টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে তাঁর মৃত্যুর খবর জানানো হয়। কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরাও তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।
আল্লামা ইউসুফ কারজাভি (রহ.) ৯ সেপ্টেম্বর ১৯২৬ খ্রিস্টাব্দে মিসরে জন্ম গ্রহণ করেন এবং আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলামী ধর্মতত্ত্ব (১৯৫৩ খ্রি.) ও কোরআনিক স্টাডিজে (১৯৬০ খ্রি.) স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। এ ছাড়া আরবি ভাষা ও সাহিত্যে ডিপ্লোমা সম্পন্ন করেন। ১৯৭৩ সালে ‘Zakah and its effect on solving social problems’ শিরোনামে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।
 
আল্লামা ইউসুফ আল-কারজাভির মাধ্যমে ১৯৭৭ সালে কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘শরিয়াহ অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ’ অনুষদের সূচনা হয় এবং তিনি অনুষদের ডিন মনোনীত হন। একই বছর তিনি ‘সেন্টার অব শারিয়াহ অ্যান্ড সুন্নাহ’ প্রতিষ্ঠা করেন। এ ছাড়া তিনি ১৯৭৭ সালে ইউরোপিয়ান কাউন্সিল ফর ফাতওয়া অ্যান্ড রিসার্চ’ প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।
 
আল্লাহ ইউসুফ আল-কারজাভির রচনার সংখ্যা ১২০টি। যার মধ্যে হালাল ও হারাম, কিতাবু ফাতাওয়া মুআসিরা, তাইসিরুল ফিকহি লিল-মুসলিমিল মুআসিরি, মিন ফিকহিদ দাওলাতি ফিলইসলাম, ফিকহুজ জাকাত, ফিকহুত তাহারাত ইত্যাদি।
 
ইসলামী অর্থনীতিতে বিশেষ অবদানের জন্য ১৪১১ হিজরিতে আল্লামা ইউসুফ আল-কারাজাভি ব্যাংক ফয়সল পুরস্কার লাভ করেন। ইসলামী শিক্ষায় বিশেষ অবদানের জন্য ১৪১৩ হিজরিতে কিং ফয়সাল অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন এবং ১৯৯৭ সালে ব্রুনাই সরকার তাকে ‘হাসান বাকলি’ পুরস্কারে ভূষিত করে। এ ছাড়া তিনি অসংখ্য আন্তর্জাতিক পুরস্কার ও সম্মাননা লাভ করেছেন।
 
উল্লেখ্য, আল্লাম ইউসুফ আল-কারজাভি দীর্ঘদিন কাতারে নির্বাসিত জীবনযাপন করছিলেন। রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির কারণে বর্তমান মিসর সরকারের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব তৈরি হয় এবং তিনি নির্বাসনের জীবন বেছে নেন।
 
ইউসুফ আবদুল্লাহ আল কারজাভি মিসরীয় বংশোদ্ভূত একজন প্রভাবশালী গবেষক ও আলেম। তিনি মিসরভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংগঠন মুসলিম ব্রাদারহুডের উপদেষ্টা ছিলেন।
 
মিসরের নাগরিক হওয়া সত্ত্বেও তিনি বহু বছর ধরে কাতারে বসবাস করে আসছিলেন। মুসলিমদের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি সংগঠনের সাথে সক্রিয়ভাবে নিজেকে জড়িয়ে রেখেছিলেন আল্লামা কারজাভি।
 
মুসলিম ধর্মতাত্ত্বিকদের অভিজাত সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অব মুসলিম স্কলার্সের প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি। ২০০৪ সালে সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয়।
 
ইউসুফ আল কারজাভি ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বিষয়ে  বহু বই লিখেছেন। তাঁর বইগুলো পাঠক মহলে ব্যাপক সমাদৃত হয়েছে।  4088130
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
captcha