IQNA

22:33 - March 08, 2017
সংবাদ: 2602676
বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও আজ ঘটা করে পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক নারী দিবস। এ উপলক্ষে বিভিন্ন নারী সংগঠনসহ সামাজিক সংস্থা ও রাজনৈতিক দলের উদ্যোগে নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে রাজপথে শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বার্তা সংস্থা ইকনা: এ উপলক্ষে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নোত্তরে  বলেছেন, নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান ৬ষ্ঠ। তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যখনই সরকার গঠন করেছে দেশের নারী সমাজের উন্নয়নে কাজ করেছে। তিনি তার সরকারের বিভিন্ন মেয়াদে নারী উন্নয়নের গৃহীত পদক্ষেপগুলো তুলে ধরেন।

ওদিকে, আজ (বুধবার) রাজধানীতে নারীদের নিয়ে গুগলের এক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক সব প্রশিক্ষণে ৩০ শতাংশ নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হয়েছে।

তবে আজকের এই দিনে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) জানিয়েছে, কাজের স্বীকৃতি নেই- এমন চারটি খাত নারীদের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ। খাতগুলো হলো বাসাবাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ, কৃষিশ্রমিক, নির্মাণশ্রমিক ও প্রবাসে শ্রমিকের কাজ।

গবেষণায় দেখা গেছে, বাংলাদেশের নারীদের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ এই খাতগুলোয় নারীরা যৌন নির্যাতনের স্বীকার যেমন হচ্ছেন, তেমনি মালিকের মারপিটের স্বীকার হচ্ছেন। একই কাজে পুরুষের তুলনায় বেতন কম দেয়া হচ্ছে। কোনো ধরনের ছুটি নেই। কোনো কোনো ক্ষেত্রে কাজের সময় নির্ধারণ করা থাকে না। আইনি সুবিধা পান না। দুর্ঘটনার জন্য ক্ষতিপূরণ দেয়া হয় না, চিকিৎসাসুবিধা নেই প্রভৃতি।

ওদিকে, আজকের এই দিনে সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিস হত্যাচেষ্টা মামলায় একমাত্র আসামি শাহজালাল বিশ্ববদ্যিালয়ের  বহিষ্কৃত ছাত্র বদরুল আলমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

এ প্রসঙ্গে বিশিষ্ট নারী নেত্রী খুশী কবীর রেডিও তেহরানকে বলেন, নারীদের শিক্ষাসহ অনেকগুলি উন্নয়ন সূচকে ইতিবাচক অগ্রগতি হলেও আজও সমাজে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়নি। বাল্য বিবাহ রোধ সংক্রান্ত আইনে জুড়ে দেয়া শর্ত নারীদের জন্য ঝুঁকি বাড়িয়ে দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে রাজধানীতে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের এটি র‌্যালি উদ্বোধনকালে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে পারলেই নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে সংকট মূলত গণতন্ত্রের সংকট। গণতন্ত্রের চর্চা নেই বলেই নারীরা নিপীড়িত, নির্যাতিত ও লাঞ্ছিত হচ্ছে। গণতন্ত্র ফেরাতে পারলেই নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে।

পার্সটুডে
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: