IQNA

23:26 - March 08, 2018
সংবাদ: 2605213
খাতুনে জান্নাত ফাতেমা যাহরা (আ.) এমনই এক মহীয়সী নারী; যিনি সকল ঈমানদার নর-নারীর মাতৃ হিসেবে খ্যাত। এমনই কি ইতিহাসের সাক্ষ্য অনুযায়ী রাসূলুল্লাহ (সা.) তাকে উম্মী আবিহা তথা পিতার মাতা হিসেবে অভিহিত করেছেন।



বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: মানুষের দু’ধরনের পিতামাতা রয়েছে; প্রথমসারির পিতামাতা হল মানুষ যাদের মাধ্যমে এ পৃথিবীতে আগমণ করে থাকে। আর দ্বিতীয় সারির পিতামাতা হলেন আধ্যাত্মিক ও ধর্মীয়। আমরা আল্লাহ ও রাসূলের প্রতি ঈমানপোষণের কারণে রাসূল (সা.) হলেন আমাদের সকলের আধ্যাত্মিক অভিভাবক। এ কারণে তিনি হলেন আমাদের আধ্যাত্মিক পিতা। আর আল্লাহ ও রাসূল (সা.) নারী জাতির মধ্যে সবচেয়ে সম্মান ও মর্যাদার অধিকারী করেছেন খাতুনে জান্নাত হযরত ফাতেমা যাহরা (সা.)। এ মহীয়সীর ঐরশজাত সন্তান ইমাম হাসান ও হুসাইন (আ.) এবং তাদের বংশধারার ৯ জন ইমাম হলেন সমগ্র মানব জাতির হেদায়েত ও দিকনির্দেশার দায়িত্বে অধিষ্ঠিত। তাদের প্রত্যেকের মাতা হলেন ফাতেমা যাহরা (আ.)।

হিজরী বর্ষ অনুযায়ী রাসূলের (সা.) নবুয়্যাত ঘোষণার ৫ম বর্ষে ২০ জামাদিউস সানী হচ্ছে হযরত ফাতেমা যাহরার (আ.) মহিমান্বিত জন্ম দিবস। এ দিন তিনি নবুয়্যাতের গৃহকে আলোকিত করে রাসূলের (সা.) ঘরে আগমণ করেন। তিনি শুধু রাসূলের আদরের কন্যা ছিলেন না; বরং স্বয়ং রাসূল (সা.) তাকে প্রায়ই উম্মী আবিহা তথা পিতার মাতা হিসেবে অভিহিত করেছেন। আর এমন নজিরবিহিন সম্বোধনের মাধ্যমে তিনি মা ফাতেমার অতুলনীয় সম্মান ও মর্যাদার প্রতি ইশারা করেছেন। শাবিস্তান 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: