IQNA

1:01 - April 10, 2020
সংবাদ: 2610569
তেহরান (ইকনা)- সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট যুদ্ধবিরতি ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ইয়েমেনের লক্ষ্যবস্তুর ওপর বিমান হামলা চালিয়েছে। আর এর মাধ্যমে নিজেদের ঘোষিত যুদ্ধবিরতিকে নিজেরাই একক ভাবে নস্যাৎ করে দিয়েছে।

সৌদি জোট ৮ম এপ্রিল ইয়েমেনে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছিল। জোটের পক্ষ থেকে সে সময়ে বলা হয়, পাঁচ বছরের এ যুদ্ধ বন্ধে জাতিসংঘ তৎপরতার প্রতি সমর্থন জানিয়ে এ পদক্ষেপ নেয়া হলো।

জোট মুখপাত্র কর্নেল তুর্কি আল-মালকি দাবি করেন, ইয়েমেনে সম্ভাব্য করোনা প্রকোপ ঠেকানোর জন্য এ পদক্ষেপ নেয়া হয়। অবশ্য, এখন ইয়েমেনে করোনা দেখা দেয়ার কোনও খবর পাওয়া যায় নি। আজ(বৃহস্পতিবার) স্থানীয় সময় দুপুর থেকে দু’ সপ্তাহের জন্য এ যুদ্ধবিরতি কার্যকর হবে এবং পরে তা বাড়ান হতে পারে বলেও জানান তিনি।

কিন্তু, এ ঘোষণার পরপরই, জোটের যুদ্ধবিমানগুলি সা'দা, আমরান এবং আল-বায়দাসহ ইয়েমেনের বেশ কয়েকটি এলাকার ওপর হামলা চালায় বলে জানিয়েছে আল-মাসিরাহ টিভি।

অবশ্য বিমান হামলার আগেই ইয়েমেনের জনপ্রিয় হুথি আনসারুল্লাহ আন্দোলন সৌদি যুদ্ধবিরতির ঘোষণাকে মোটেও গুরুত্ব দেয় নি। আনসারুল্লাহ বলে, ইয়েমেনে আগ্রাসন চালাতে দিয়ে গভীর চোরাবালিতে আটকা পড়েছে সৌদি জোট। এ চোরাবালি থেকে সম্মান বাঁচিয়ে সরে আসার রিয়াদের প্রাণপণ চেষ্টারই অংশ এ যুদ্ধবিরতি।

আল-মায়াদিন টিভিকে আনসারুল্লাহ আন্দোলনের রাজনৈতিক ব্যুরোর প্রবীণ সদস্য মোহাম্মদ আল-বুখাইতি বলেন, যুদ্ধবিরতি আগ্রাসী এ জোটের একটি ধূর্ত পদক্ষেপ মাত্র।

কোভিড-১৯’এর প্রকোপকে অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করে সম্মান নিয়ে ইয়েমেন থেকে সরে আসতে চাইছে সৌদি জোট। তবে ইয়েমেনের বিরুদ্ধে অবরোধ বজায় রেখে এ যুদ্ধের সমাপ্তি টানা যাবে না বলেও জানান তিনি। তিনি আরও বলেন, ইয়েমেনের অবরোধ প্রত্যাহার না করা হলে যে কোনও যুদ্ধবিরতি কেবল মাত্র সৌদি যুদ্ধের ধারাবাহিকতা হিসেবে গণ্য হবে। iqna

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: