IQNA

19:07 - May 28, 2020
সংবাদ: 2610860
তেহরান (ইকনা): নির্ধারিত সময়ের আগেই আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে। বুধবার ট্রাম্প প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা এই তথ্য জানিয়ে বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সেনা দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য পেন্টাগনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

আফগানিস্তানের দীর্ঘ যুদ্ধের পরবর্তী ধাপে তিন দিনের যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষ হওয়ার সাথে সাথে এবং সহিংসতা আবার ফিরে আসতে পারে এমন উদ্বেগের মধ্যেই সেনা প্রত্যাহারের তোড়জোড় করছে যুক্তরাষ্ট্র। গত ফেব্রুয়ারিতে তালেবানদের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাক্ষরিত একটি চুক্তিতে বলা হয়েছিল, পেন্টাগন ২০২১ সালের মে মাসের মধ্যে সমস্ত বাহিনী প্রত্যাহার করবে এবং তার আগে জুলাইয়ের মাঝামাঝি নাগাদ সৈন্যের সংখ্যা ১২ হাজার থেকে ৮ হাজার ৬০০ তে নামিয়ে আনবে।

তবে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের এক প্রবীণ কর্মকর্তা বলেছিলেন যে, বর্তমানে সেখানে সেনার সংখ্যা ছিল প্রায় সাড়ে সাত হাজার। কারণ, করোনাভাইরাস মহামারী নিয়ে আতঙ্কের কারণে কমান্ডাররা সেনা প্রত্যাহারকে ত্বরান্বিত করতে চেয়েছেন।

গত বুধবার ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেন, আমেরিকা আফগানিস্তানে ‘পুলিশ বাহিনী’ হিসাবে কাজ করবে না। তিনি লিখেছেন, ‘১৯ বছর পরে, তাদের নিজের দেশের পুলিশের কাজ করার সময় এসেছে।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের সৈন্যদের ঘরে ফিরিয়ে আনুন। তবে সেখানে কী চলছে তা নিবিড়ভাবে দেখুন এবং যদি প্রয়োজন হয়, বজ্রপাতের মতো আঘাত করুন।’

পেন্টাগনের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল থমাস ক্যাম্পবেল এক বিবৃতিতে জানান, যুক্তরাষ্ট্র তালেবানদের সাথে তার চুক্তি মেনে চলেছে। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রে সরকার সুরক্ষা পরিবেশ এবং তালেবানদের চুক্তির সাথে সম্মতি মেনে নেয়ার পরে সেনার সংখ্যা আরও কমানো হবে।’

বিশ্লেষকদের ধারণা, আফগানিস্তানে চলমান যুদ্ধ থেকে ফিরে আসাকে আগামি নির্বাচনের অস্ত্র বানাতে চাচ্ছেন ট্রাম্প। তাই এর আগেই বড় ধরণের পদক্ষেপ আসতে পারে।
সূত্র: রয়টার্স/dailyinqilab

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: