IQNA

13:41 - December 03, 2020
সংবাদ: 2611904
তেহরান (ইকনা): আমাদের সমসাময়িক কালে ( ইরানী , বাংলাদেশী , ভারতীয় , পাকিস্তানীদের ) গড় আয়ু ৭০ বছরের কিছু উর্ধ্বে ( ৭৫ বা ৭৬ বছর ) হওয়ার কারণে আমরা বিস্মিত হই অথচ আমাদের আলেমরা সৌভাগ্য বশত : এ ক্ষেত্রে ( দীর্ঘ জীবি হওয়ার ক্ষেত্রে ) রেকর্ড সৃষ্টিকারী ।

আমাদের আলেম এবং মারজা- ই তাকলীদদের ( মারজা- ই তাকলীদ হচ্ছেন ঐ সব ফকীহ মুজাহিদ আলেম যাদের ফতোয়া আম জনসাধারণ অনুসরণ করে ) গড় বয়স ৯০ বছরের উর্ধ্বে হওয়া অত্যন্ত স্বাভাবিক । বর্তমান কালের
কয়েক জন মারজা-ই তাকলীদ আলেমের বয়স নীচে উল্লেখ করা হলো :
আয়াতুল্লাহ আল উযমা লুৎফুল্লাহ সাফী গোলপায়গানীর বয়স বর্তমানে : ১০২ বছর
আয়াতুল্লাহ আল উযমা ওয়াহীদ খোরাসানীর বয়স বর্তমানে : ১০০ বছর
আয়াতুল্লাহ আল উযমা নূরী হামাদানীর বয়স বর্তমানে : ৯৫ বছর
আয়াতুল্লাহ আল উযমা নাসের মাকারেম শীরাযীর বয়স বর্তমানে : ৯৪ বছর
আয়াতুল্লাহ জান্নাতীর বয়স বর্তমানে : ৯৪ বছর
আয়াতুল্লাহ আল উযমা সাইয়েদ মূসা শুবাইরী-ই যানজানীর বয়স ( বর্তমানে : ৯৩ বছর
এ সব মারজা- ই তাকলীদ আলেম বর্তমানে জীবিত আছেন । মহান আল্লাহ এঁদেরকে আরো দীর্ঘ জীবি করুন । )
আমাদের আলেম ও মারজা- ই তাকলীদদের সুস্থ , সবল ও দীর্ঘ জীবি হওয়ার মূল কারণ ও রহস্য কী ?
তাঁদের শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ এবং দীর্ঘ জীবি হওয়ার মূল রহস্য ও মুখ্য কারণ হচ্ছে তাদের সঠিক ইসলামী জীবন যাপন । এ সব আলেম ও মারজা- ই তাকলীদ দেহ - মন - আত্মার সুস্থতা , স্বাস্থ্য , চিকিৎসা ও খাদ্য - পুষ্টি সংক্রান্ত পবিত্র কুরআন এবং মহানবী ( সা.) ও তাঁর পবিত্র আহলুল বাইতের বিধি নিষেধ ও নিয়মনীতি ( মনো দৈহিক স্বাস্থ্য ও সুস্থতা সংক্রান্ত ইসলামের নীতিমালা ) পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে মেনে চলেন । পার্থিব দুনিয়াবী জীবনের প্রতি তাঁদের দৃষ্টি ভঙ্গি ইসলামী ও স্বচ্ছ এবং সর্বাবস্থায় মহান আল্লাহর উপর তাঁদের তাওয়াক্কুল ও ভরসা করার কারণে তাঁরা সবসময় দু:খ - বিষাদ ও দুশ্চিন্তা থেকে মুক্ত থাকেন । তাঁরা সব সময় ইসলামী জ্ঞান বিজ্ঞান চর্চা করেন , পড়েন ( অধ্যয়ন ও গবেষণা করেন ) ও পড়ান এবং অন্যদেরকে পড়াশোনা ও গবেষণায় গাইড করেন ও দিক নির্দেশনা দেন । মৃত্যু পর্যন্ত তাঁরা জ্ঞান চর্চা , পঠন পাঠন , গবেষণা , অধ্যয়ন ও অধ্যাপনা অব্যাহত রাখেন । তাঁরা হচ্ছেন " দোলনা ( মাহ্দ্ ) থেকে গোর ( কবর ) পর্যন্ত তোমরা বিদ্যান্বেষণ করো ( উতলুবূল ইলমা মিনাল মাহদি ইলাল্ লাহাদ্ )" - মহানবীর ( সা.) প্রসিদ্ধ এ হাদীসটির বাস্তব নমূনা ( মিসদাক ) ।
এ সব মারজা - ই তাকলীদ আলেম ঐতিহ্যবাহী ইসলামী সংস্কৃতি , জীবন ধারা , চিকিৎসা ব্যবস্থা , খাদ্য - পথ্য , পুষ্টি ও ওষুধ নীতি ও জীবন ব্যবস্থার জীবন্ত প্রতিমূর্তী ও বাস্তব উদাহরণ ।
আজ পাশ্চাত্য আমাদেরকে ইসলামী জীবন ব্যবস্থা , সংস্কৃতি ও স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা পদ্ধতি সম্পূর্ণ ভুলিয়ে দিয়ে আমাদের উপর বস্তাপচা বস্তুবাদী কুফরী কুসংস্কৃতি , অসভ্যতা , অশালীন অশোভন জীবন যাত্রা , বিশ্রী অনৈতিক চালচলন ও বাজে খাদ্য পুষ্টি ও অসফল স্বাস্থ্য নীতি ও রোগ বর্দ্ধক ব্যর্থ চিকিৎসা পদ্ধতি চাপিয়ে দিয়েছে যার অর্গল থেকে মুক্তি পেতে হলে এ সব সনাম ধন্য জীবিত ইসলামী আলেম , মারজা- ই তাকলীদ ও পণ্ডিতের জীবন ও জীবনী আমাদের বরেণ্য আদর্শ
হওয়া উচিত ।
মহান আল্লাহ পাক আমাদেরকে তাঁদের অনুসরণ করার তৌফিক দিন ।
লেখক: হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন মুহাম্মদ মুনীর হুসাইন খান

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: