IQNA

ইরানের প্রেসিডেন্ট

সাম্প্রতিক ষড়যন্ত্রে শত্রুদের লক্ষ্য ছিল দেশকে বিচ্ছিন্ন করা

10:45 - October 03, 2022
সংবাদ: 3472574
তেহরান (ইকনা): হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি দেশকে অগ্রগতি থেকে বিরত রাখার জন্য একটি নতুন ষড়যন্ত্রের পরিকল্পনা করা শত্রুদের উদ্দেশ্য বলে মনে করেন। তিনি এ সম্পর্কে বলেন: যখন ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরান অর্থনৈতিক সমস্যাগুলি কাটিয়ে উঠেছে এবং অঞ্চল ও বিশ্বে আরও অঞ্চলে উপস্থিত হওয়ার জন্য সক্রিয় হয়ে উঠেছে, তখন শত্রুরা দেশকে বিচ্ছিন্ন করার উদ্দেশ্য নিয়ে ময়দানে প্রবেশ করেছে, কিন্তু এই ষড়যন্ত্রেও তারা ব্যর্থ হয়েছে।
২য় অক্টোবর রবিবার, শহীদের সংস্কৃতির প্রচার ও বিকাশের জন্য সুপ্রিম কাউন্সিলের চতুর্থ সভায় শহীদের সংস্কৃতির প্রতি মনোযোগ এবং বাসিজির চিন্তাভাবনা সমাজের অপরিহার্য প্রয়োজন বলে মনে করে তিনি বলেন: ত্যাগ ও শাহাদাতের সংস্কৃতির প্রসারে কোনো ঘাটতি থাকলে, সেই স্থানে অন্য চিন্তা ও বিশ্বাস প্রতিস্থাপন করবে। আমাদের দেশের যুব সমাজকে রক্ষা করার একটি গুরুত্বপূর্ণ উপায় হল এই সংস্কৃতির প্রতি মনোযোগ দেওয়া।
 
ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, তার দেশের অগ্রগতি থামিয়ে দেয়ার লক্ষ্যে শত্রুদের সর্বশেষ ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হয়েছে। তিনি রোববার তেহরানে মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে ইরানের বিরুদ্ধে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলোর অপপ্রচারের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, [নিরাপত্তা হেফাজতে নিহত] মাহসা আমিনির মৃত্যুর প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলো পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করছে।
 
ইরানে মহিলা পুলিশের হেফাজতে কুর্দি নারী মাহসা আমিনি অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়ার পর থেকে গত কিছু দিন ধরে সহিংসতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা চালাচ্ছে একটি স্বার্থান্বেষী মহল। এতে উসকানি দিচ্ছে বিদেশি অর্থায়নে পরিচালিত কয়েকটি গণমাধ্যম। প্রেসিডেন্ট রায়িসি দৃশ্যত এ বিষয়টির প্রতি ইঙ্গিত করে ওই বক্তব্য দিয়েছেন।
 
তিনি আরো বলেন, “শত্রুরা জনমতকে প্রভাবিত করতে গণমাধ্যমগুলোকে লেলিয়ে দিয়েছে। আমরা আফগানিস্তানের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কিছু মেয়েকে মার্কিন সমর্থিত সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত হতে দেখলাম। কিন্তু ওই বিষয়টি নিয়ে কথিত মানবাধিকারের প্রবক্তাদের কোনো প্রতিক্রিয়া দেখতে পেলাম না।”
 
তিনি প্রশ্ন করেন, এমন একটি অবস্থায় ইরানের মানবাধিকার ও নারী অধিকারের ব্যাপারে পশ্চিমা দেশগুলো যে উদ্বেগ প্রকাশ করছে তা কি গ্রহণযোগ্য হতে পারে?
 
আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি কোচিং সেন্টারের মহিলা সেকশনে গত শুক্রবার এক শক্তিশালী বোমা হামলায় অন্তত ৩৫ জন নিহত ও ৮২ জন আহত হয়।হতাহতদের বেশিরভাগই ওই কোচিং সেন্টারের ছাত্রী।
 
প্রেসিডেন্ট রায়িসি তার বক্তব্যের অন্য অংশে আরো বলেন, ইরান যখন চরম অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার মধ্যে থেকেও আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ঘটনাবলীতে শক্তিশালী ভূমিকা রেখে যাচ্ছে তখন এদেশকে একঘরে করে ফেলার জন্য শত্রুরা একযোগে মাঠে নেমেছে। কিন্তু অতীতের মতো তাদের এ ষড়যন্ত্রও ব্যর্থ হবে। 4089242
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
captcha