IQNA

20:44 - August 11, 2017
সংবাদ: 2603616
ইমামগণ যে আমাদের জীবনের সাথে জড়িত তা অস্বীকার করার কোন উপায় নেই। আর ইমাম হুসাইন(আ.) কারবালায় শাহাদাত বরণ করে শাহাদাতকে আমাদের জন্য গর্ব হিসাবে রেখে গেছেন।
শহীদ মুহাম্মাদ রেজার বাড়িতে ইমাম রেজার কেরামত

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: দুনিয়ার সব মায়া ভুলে একমাতে আল্লাহর সাথে মিশে একাকার হয়ে যাবার নাম হচ্ছে শাহাদাত। মানুষ যখন নিজেকে আধ্যাত্মিক ভাবে গড়ে তুলতে পারে তখনই সে শাহাদাতের মর্যাদা উপলব্ধি করতে পারে এবং শহীদ হয়।

সূরা আলে ইমরানের ১৬৯ নম্বর আয়াতে আল্লাহপাক বলেছেন:

وَلَا تَحْسَبَنَّ الَّذِينَ قُتِلُوا فِي سَبِيلِ اللَّهِ أَمْوَاتًا بَلْ أَحْيَاءٌ عِنْدَ رَبِّهِمْ يُرْزَقُونَ

যারা আল্লাহর পথে নিহত হয়েছে, তাদের কখনও মৃত মনে কর না, বরং তারা জীবিত এবং তারা আল্লাহর পক্ষ থেকে জীবিকা পেয়ে থাকে।

শহীদকে মৃত ও ক্ষতিগ্রস্ত ভাবা ভুল চিন্তা মাত্র। শাহাদাত পরাজয় বা কোন কিছু হারানোর মত বিষয় নয়। বরং শাহাদাত হল অর্জন ও বিজয়।

শাহাদাত জীবনের অবসান ঘটায় না বরং শাহাদাত হলো ঐশী জীবনের সূচনা। অনেক জীবিত ব্যক্তিই প্রকৃতপক্ষে মৃতের সমান। আবার অনেক নিহত ব্যক্তিও জীবিত ব্যক্তির সমান। অন্ধ মানুষ যেমন দেখা বা দৃষ্টির বিষয় বুঝতে পারে না, তেমনি আমরাও অদৃশ্য জগতের ব্যাপারে অন্ধ বলেই ঐ জগতের জীবনকে উপলব্ধি করতে পারি না।

শহীদ মুহাম্মাদ রেজা সাবাহির মা তার সন্তানের শাহাদাতের পর এবং প্রায় ১৮ বছর আগে একটি স্বপ্ন দেখে যে ইমাম রেজা(আ.) এর খাদেমরা তারা বাসায় রেজা রেজা যিকির পড়তে পড়তে আসছে। আজ আপনার এসে সেই স্বপ্নের সত্যতা প্রমাণ করণে এবং এটাকে আমি ইমাম রেজার কেরামত হিসাবে মনে করি।

শহীদরা বারজাখ বা কবরের জীবনে অর্থাৎ ইহকাল ও পুনরুত্থানের মধ্যবর্তী পর্যায়ে প্রকৃত জীবনের অধিকারী এবং এই জীবনে তারা জীবিকা, প্রাণ ও সুসংবাদ পায়। শহীদদের জীবিত থাকার অর্থ শুধু এই নয় যে, ইতিহাসে তাদের নাম অমর হয়ে থাকবে। তারা পৃথিবীর মানুষের মত জীবিত এবং রিজিক ও পেয়ে থাকেন।

আমাদের জন্য শহীদদের বাণী হল আল্লাহর পথে চলতে থাক, যতক্ষণ না শহীদ হও। শহীদ হলে ভবিষ্যতের ব্যাপারে কোন ভয় থাকবে না এবং অতীতের ব্যাপারেও কোন দুঃখ থাকবে না।

শহীদরা তাদের রক্ত ও কাজের পুরস্কার হিসেবে আল্লাহর দয়া ও অনুগ্রহ পান।  শাবিস্তান
ট্যাগ্সসমূহ: ইকনা ، শহীদ ، আল্লাহ
নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য:
* captcha: