IQNA

17:16 - January 19, 2020
সংবাদ: 2610070
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরাকি সিকিউরিটি ইন্টেলিজেন্স কোর সেদেশের নেইনাওয়া প্রদেশ থেকে তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের নিরাপত্তা কর্মকর্তা এবং এই দলের মুফতির ভাইয়ের গ্রেফতার হওয়ার খবর জানিয়েছে।

রাশিয়া এলিয়াম নিউজ এজেন্সির উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা ইকনা’র রিপোর্ট: ইরাকি সিকিউরিটি ইন্টেলিজেন্স কোর একটি বিবৃতি ঘোষণা করেছে: নেইনাওয়া প্রদেশের সামরিক কমান্ডের আওতাধীন “হাদাবা” পুলিশ বিভাগ সঠিক তথ্য এবং সন্ত্রাসীদের উপর গবেষণা করে তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ তথা আইএসের মুফতির ভাই এবং নিরাপত্তা কর্মকর্তা “নাজার আলী বশির আল নেয়ামাত”কে গ্রেফতার করেছে।
এই বিবৃতিতে বলা হয়েছে: আইএসের মুফতির ভাই বশিল আল নেয়ামত মূলত “আবু আব্দুল বারী শাফা আল নেয়ামত” নামে প্রসিদ্ধ। এই শীর্ষ সন্ত্রাসীকে বৃহস্পতিবার মসুল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
মসুল শহরে হযরত ইউনুস (আ.) মসজিদে গুলিবর্ষণ এবং এই শহরের অনেক বাসিন্দাকে মৃত্যুদণ্ডের রায় প্রদান করে তাদের গুলি করে হত্যা করার নির্দেশ দিয়েছে দায়েশের কথিত মুফতি আবু আব্দুল বারী। অবশেষে তাকে ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনী গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।
আবদুল বারী তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের প্রথম সারির অন্যতম এক নেতা। এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর আদেশ প্রত্যাখ্যান এবং এই দলে যোন না দেওয়ার জন্য “আবু আব্দুল বারী শাফা আল নেয়ামত” মসুলের বেশ কিছু আলেম ও শিক্ষাবিদদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ফতোয়া জারির করেছে।
আবু আব্দুল বারীকে দায়েশের বিকৃত আদর্শের প্রচারকদের মুফতি হিসাবে দেখা হয় এবং এই নামধারী মুফতি তার উস্কানিমূলক বক্তৃতার মাধ্যমে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সদস্যদের অমানবিক অপরাধ করতে উৎসাহিত করেছে।
আবদুল বারির গ্রেপ্তারের পরে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গিয়েছে যে, স্থূলত্ব এবং অস্বাভাবিক ওজনের কারণে সে চলাচল করতে পারছে না। ফলে তাকে ডিটেনশন সেন্টারে স্থানান্তর করর জন্য পিকআপ ট্রাক ব্যবহার করা হয়েছে।
বলাবাহুল্য যে, তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ ২০১৪ সালের জুন থেকে ২০১৭ সালের জুলাই পর্যন্ত নেইনাওয়া প্রদেশের কেন্দ্রীয় শহর মসুলকে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রেখেছিল।  iqna

 

নাম:
ই-মেল:
* আপনার মন্তব্য: